আজ  মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮

আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর সারাদেশে উন্নয়নের জোয়াড় বইছে : ত্রাণ মন্ত্রী মায়া চৌধুরী এমপি

মতলবে দেড় শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী আ’লীগে যোগদান
1
মতলব প্রতিনিধি :
চাঁদপুরের মতলব উত্তরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (বীর বিক্রম) এমপির বাসভবনে দেড় শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী আওয়ামীলীগে যোগদান উপলক্ষে বলেছেন, আওয়ামীলীগ কাউকে কখনো বঞ্চিত করে না। যারা দলের জন্য কাজ করবে তাদের অবশ্যই মূল্যায়ন করা হবে। বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদানকৃত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, যে আশাও ভরসা নিয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীরা আওয়ামীলীগে আজ যোগদান করলেন, আপনারা নিরাশ হবেন না। আপনাদের উপযুক্ত মূল্যায়ন উপজেলা আওয়ামীলীগ করবে। আগামী কয়েক বছর পর মতলবের কোন মানুষ বিদেশে যেতে হবে না। মতলবেই তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি আরো বলেন, সকলে মিলে-মিশে মতলবকে একটি ফুলের বাগান হিসেবে আমি সাজাতে চাই।
2
গতকাল শুক্রবার উপজেলার মোহনপুর আলী মিয়া ভিলা মিলনায়তনে জহিরাবাদ ইউনিয়ন, দূর্গাপুর ইউনিয়ন, ইসলামাবাদ ইউনিয়ন ও সুলতানাবাদ ইউনিয়নের প্রায় দেড় শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীদের আওয়ামীলীগে যোগদান উপলক্ষ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আয়োজিত যোগদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
 
মন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সকার যখনই ক্ষমতায় আসে, তখনই দেশের উন্নয়ন হয়। এবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর সারাদেশে উন্নয়নের জোয়াড় বইছে। দেশে এখন বিরাজ করতে উন্নয়নের রোল মডেল। আর এ উন্নয়ন দেখে সারাদেশে বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল থেকে আওয়ামীলীগে যোগদান করছেন। স্বাধীনতা বিরোধী, যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গিবাদ ছাড়া বাকী সকলের জন্য আওয়ামীলীগে আসার দরজা সবসময় খোলা। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। মতলববাসী তা দেখেছে। যতদিন বেঁচে থাকি ততদিন মতলবের মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবো। মতলবের সকলকে নিয়ে এই উপজেলাকে একটি আধুনিক শিল্পনগরী ও মিনি সিঙ্গাপুর সিটিতে রুপান্তরিত করার লক্ষ্যে আমি কাজ করে যাব।
M2
ত্রাণ মন্ত্রী মায়া চৌধুরী আরো বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্ররা শেখ হাসিনার উন্নয়ন দেখে ঈশ্বানিত হয়ে দেশের উন্নয়নকে বাঁধা গ্রস্থ করতে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের মাধ্যমে আওয়ামলীগের উন্নয়নের ধারাকে বাঁধা গ্রস্থ করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। আওয়ামীলীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশের আইন-শৃক্সখলা বাহিনীর মাধ্যমে জঙ্গিবাদ র“খতে সক্ষম হয়েছেন। কাজেই কোন ষড়যন্ত্রই সফল হবেনা। আগামীতে জনগন আবারো আওয়ামীলীগকে নৌকায় ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনবে।
 
কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু বলেন, আওয়ামীলীগে যোগদান করে আপনারা আমাদের সম্মানিত করেছেন। আমরা সে সম্মানের মূল্য রাখবো। আত্ম বিশ্বাস নিয়ে কাজ করুন। দল আপনাকে অবশ্যই মূল্যায়ন করবে।
 
মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. রুহুল আমিনের সভাপত্বে ও সাধারন সম্পাদক এমএ কুদ্দুসের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, বিএনপি থেকে আওয়ামীলীগে যোগদানকারী দূর্গাপুর ইউনিয়ন প্রভাবশালী বিএনপি নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বিলাল হোসেন বেপারী, দূর্গাপুর ইউপি সদস্য দুলাল হোসেন, জহিরাবাদ ইউনিয় বিএনপির নেতা মো. সোলেমান। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমন ও দূর্গাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি-সম্পাদকের নেতৃত্বে দূর্গাপুর ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সরকার মুকুল ও ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক জসিম সরকারে নেতৃত্বে ইসলামাবাদ ইউনিয়নের নেতাকর্মী ও জহিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গাজী মুক্তার ও সম্পাদক এবং ইউপি চেয়ারম্যান আলী আক্কাস বাদলের নেতৃত্বে জহিরাবাদের বিএনপির নেতাকর্মীরা আওয়ামীলীগে যোগদান করেন।
 
সভায় উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যার জাহাঙ্গীর আলম মাস্টার, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, ছেঙ্গারচর পৌর মেয়র রফিকুল আলম জজ, জেলা পরিষদের সদস্য আল-আমিন ফরাজী, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি শহীদ উল্লা মাস্টার, যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আইয়ুব আলী গাজী, ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার, স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত মোহনপুর ইউপি চেয়ারম্যান সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, ইউপি চেয়ারম্যান সাজেদুল হাসান বাবু বাতেন, দেওয়ান আবুল খায়ের, মন্ত্রীর এপিএস মুক্তিযোদ্ধা তমিজ উদ্দিন, ছেঙ্গারচর পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাাদক আতাউর রহমান ঢালী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়া জহির, সাধারন সম্পাদক কাজী শরীফ, জহিরাবাদ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গাজী মুক্তার, ছেঙ্গারচর পৌরসভার প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব রুহুল আমিন মোল্রা, পৌর যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম বেপারী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি কামর“ল হাসান মামুন, সাধারন সম্পাদক খোরশেদ আলম অপু, মতলব উত্তরের আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।