আজ  মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮

ইতিহাস গড়তে প্রয়োজন আর ১৫৩ রান, শ্রীলঙ্কার ৮ উইকেট

Mustafiz-550x344

শততম টেস্টে ইতিহাস গড়ে সিরিজে সমতা ফেরাতে বাংলাদেশকে করতে হবে ১৯১ রান।
কলম্বো টেস্টের পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনে ৬২ রান যোগ করে ৩১৯ অল আউট হয়ে যায় শ্রীলংকা।
জবাবে ইতিমধ্যে ইতিহাস গড়ার লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করছে বাংলাদেশ।
বাংলাদেশের হয়ে ইনিংসের সূচনা করেছেন তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার।
সৌম্য ও ইমরুলের খামখেয়ালিপনায় ইতিহাস গড়ার পথ অনেকটা কঠিন হয়ে গেল।
লাঞ্চ বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ দুই উইকেটে ৩৮ রান।
তামিম ২২ ও সাব্বির ৫ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।
এর আগে, নিজের চার ওভারের মধ্যে মুস্তাফিজুর রহমান নিলেন ৩ উইকেট, সাকিব আল হাসান ২ উইকেট। ঘুরে যায় ম্যাচের মোড়। কলম্বো টেস্টের চালকের আসনে বসে বাংলাদেশ। দুই বাঁহাতির দারুণ বোলিংয়ে নিজেদের শততম টেস্টে জয়ের আশায় বাংলাদেশ।
চতুর্থ দিনের খেলা শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২৬৮ রান। দলটি এগিয়ে ১৩৯ রানে। দিলরুয়ান পেরেরা ২৬ ও সুরঙ্গা লাকমল ১৬ রানে অপরাজিত। অবিচ্ছিন্ন নবম উইকেটে দুই জনে গড়েছেন ৩০ রানের জুটি।
দিলরুয়ান পেরেরা ৫০ রান করে রান আউট হন। ও লাকমাল ৩৪ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।
পি সারা ওভালে এদিন স্বাগতিকদের অলআউট করতে না পারলেও আঁটসাঁট বোলিংয়ে বেশি রানও করতে দেয়নি মুশফিকুর রহিমের দল। সারা দিনে শ্রীলঙ্কা ৮৭ ওভারে তুলে ২১৪ রান। তাই লিডটাও বড় হয়নি।
বিনা উইকেটে ৫৪ রান নিয়ে শনিবার খেলা শুরু করা শ্রীলঙ্কা শুরুতেই হারায় উপুল থারাঙ্গাকে। দিনের দ্বিতীয় ওভারে নিজের প্রথম বলে আঘাত হানেন মেহেদী হাসান মিরাজ। স্বপ্নের এক ডেলিভারিতে বোল্ড করেন গল টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে শতক করা বাঁহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানকে।
শুরুর এই সুবিধা নিতে পারেনি বাংলাদেশ। অতিথিদের ভাগ্যটাও সঙ্গে ছিল না। ব্যাটের কানা নেওয়া বল কয়েকবার একটুর জন্য হাতে যায়নি। এর মাঝে ব্যক্তিগত ১২ রানে একবার জীবন পান কুসল মেন্ডিস। মিরাজের বলে ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে ফিল্ডার ধরতে পারেননি ক্যাচ। ১ উইকেটে ১৩৭ রান নিয়ে লাঞ্চে যায় শ্রীলঙ্কা।
খেলার চিত্রটা পাল্টায় দ্বিতীয় সেশনে। লাঞ্চের আগে ঘাটতি পুষিয়ে নেওয়া স্বাগতিকরা এলোমেলো হয়ে যায় এক সেশনে। মুস্তাফিজ ও সাকিবের দারুণ বোলিংয়ে ৪৭ রানের মধ্যে ৫ উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ।
দিনের শেষ সময়টা লাকমলকে নিয়ে কাটিয়ে দিয়েছেন পেরেরা।
তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ ও সাকিব। তাইজুল ও মিরাজের শিকার একটি করে। ভালো বল করলেও উইকেট মেলেনি শুভাশীষ রায় চৌধুরীর।
লঙ্কানদের লেজ শেষ বেলায় গুটিয়ে দিতে চেষ্টার কমতি ছিল না বাংলাদেশের। কিন্তু শেষ দুটি উইকেট আর পাওয়া হয়নি। কিন্তু জয়ের সুবাস ঠিকই পাচ্ছেন তারা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৩৩৮
বাংলাদেশ: ১ম ইনিংস: ৪৬৭
শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংস: ১০০ ওভারে ২৬৮/৮ (করুনারতেœ ১২৬, থারাঙ্গা ২৬, মেন্ডিস ৩৬, চান্দিমাল ৫, গুনারতেœ ৭, ডি সিলভা ০, ডিকভেলা ৫, পেরেরা ২৬*, হেরাথ ৯, লাকমল ১৬*; শুভাশীষ ০/৩৬, মিরাজ ১/৬৭, মুস্তাফিজ ৩/৫২, সাকিব ৩/৬১, মোসাদ্দেক ০/১০, তাইজুল ১/৩১)