আজ  রবিবার, ২০ মে, ২০১৮

উন্নয়নের স্বার্থে আগামী দিনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে : ত্রাণ মন্ত্রী মায়া চৌধুরী

মতলব উত্তরে এখলাছপুর ইউনিয়নে উন্নয়ন সমাবেশ
Matlab news pic 2

আরাফাত আল-আমিন ◊
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (বীর বিক্রম) এমপি বলেছেন, শেখ হাসিনা বাচঁলে বাংলাদেশ বাঁচবে। আর বাংলাদেশ বাঁচলে দেশের জনগন বাঁচবে। তাই দেশের স্বার্থে দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আগামী দিনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী আমাদের সব কিছু দিয়েছেন। কিন্তু আমরা কিছুই দিতে পারিনি। যতদিন বাঁচবেন, তিনি দেশকে দিয়েই যাবেন। তিনি যতদিন বাঁচবেন প্রধানমন্ত্রী ও দেশের অভিভাবক হয়ে আমাদের মাঝে থাকবেন এটাই আমি চাই। বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) বিকালে মতলব উত্তর উপজেলার এখলাছপুর ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন কর্তৃক আয়োজিত উন্নয়ন সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ত্রাণ মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, উন্নয়নের স্বার্থে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দরবারে নাই বলতে কোন শব্দ নেই। উন্নয়নের জন্য যে ১০ চায় তাকে তিনি ২০ দেন। প্রধানমন্ত্রী আমাকেও বলেছেন দেশের যেখানেই যাবেন দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য ১০ চাইলে তাকে ২০ দিবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার এ উধারতা দেশের উন্নয়নের গতি বাড়িয়ে দিয়েছে।

মন্ত্রী মায়া চৌধুরী আরো বলেন, আগামী বছরের মধ্যে মতলবকে সিঙ্গাপুরে রূপান্তরিত করা হবে। মতলবের উন্নয়নের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। অল্প কিছু কাজ বাকী আছে সেগুলোও পর্যায়েক্রমে শেষ করা হবে। প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়া হচ্ছে। মতলবের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনে আমি ও আমার পরিবারের জীবন উৎসর্গ করবো। তিনি বলেন, চরাঞ্চলে প্রায় সাড়ে তিন হাজার একর সম্পত্তির উপর ইকোনমিক জোন তৈরি করা হচ্ছে। এতে প্রায় ২ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে। অবহেলিত মতলবের চরাঞ্চলবাসীর ভাগ্য পরিবর্তন হবে অর্থনৈতিক জোনের মাধ্যমে। তাদের আর বিদেশে যেতে হবে না। কাজের সন্ধানে সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়া দৌড়াতে হবে না। মতলবের সন্তান যারা বিদেশে আছে তারা ২টি বছর অপেক্ষা করেন, মতলবের ইকোনমিক জোনেই আপনাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ভোট দিয়ে আমার আওয়ামীলীগকে ক্ষমতায় আনার জন্য সকলের প্রতি উর্ধাত্ত আহ্বান জানান। এবং নিজের ও নিজের পরিবারের সকল সদস্যদের সুস্থতার জন্য দোয়া চান। বক্তব্যের পূর্বে মন্ত্রীকে উন্নয়নের বন্ধু উপাধি দিয়ে স্বর্ণের চাবিযুক্ত ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানান ইউপি চেয়ারম্যান মোছাদ্দেক হোসেন মুরাদ।

Matlab news pic 3
উন্নয়ন সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ও বক্তব্যে ইউনিয়নের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরেন এখলাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোছাদ্দেক হোসেন মুরাদ। এখলাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীলীগের সাধারন সম্পাদক মো. বোরহান নেতার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওচমান গণি পাটোয়ারী, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. রুহুল আমিন, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা রিয়াজ উদ্দিন মানিক, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনজুর আহমদ, উপজেলা আওয়ামীলগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস, ছেঙ্গারচর পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম জজ, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী, আওয়ামীলীগ নেতা ও অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা সুর্বণা চৌধুরী বীণা, উপজেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. আমান উল্লাহ, জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রহমত উল্লাহ সরকার লিখন, ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক বজলুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাম্মেল হক, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পারভীন শরীফ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডাবলু, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ, উপজেলা মহিলা লীগের সাধারন সম্পাদক সাবিনা ইয়াসমিন স্বপ্না, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারন সম্পাদক জিএম ফারুক, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি আমান উল্লাহ মাস্টার, ইউপি সদস্য আবু মুছা, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বাদশা মিয়া, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন ঢালী প্রমুখ।

সমাবেশে আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।