আজ  শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭

গজরা ইউনিয়নকে ডিজিটাল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলতে চাই : চেয়ারম্যান হানিফ দর্জি

Chairman Hanif Darjee

আরাফাত আল-আমিন, মতলব (চাঁদপুর) :
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী এবং চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া (বীর বিক্রম) এর সহযোগীতায় ও মতলব উত্তরের গজরা ইউনিয়ন পরিষদের স্বনামধন্য চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. হানিফ দর্জির অক্লান্ত পরিশ্রমের নেতৃত্ব ইউনিয়নের উন্নয়ন কাজ দূর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলছে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই গজরা ইউনিয়নের সকল উন্নয়ন কাজ শেষ করতে চান চেয়ারম্যান হানিফ দর্জি।
এক সাক্ষাতে চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. হানিফ দর্জি বলেন, ত্রাণ মন্ত্রীর সহযোগীতায় আমার ইউনিয়নের উন্নয়ন কাজ দ্রুত এদিয়ে চলছে। আগামী দু’এক বছরের মধ্যেই সকল উন্নয়ন কাজ শেষ করতে চাই। এবং গজরা ইউনিয়নকে একটি ডিজিটাল মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলতে চাই। এজন্য ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ ও ইউনিয়নবাসী সকলের সহযোগীতা চাই। তিনি আরো বলেন, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে গজরা ইউনিয়নকে আমরা ডিজিটাল মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলতে চাই। দেশনেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের যে উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন এজন্য আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রধানমন্ত্রী মহোদয়কে ধন্যবাদ জানাই।
চেয়ারম্যান হানিফ দর্জি বলেন, ইতোমধ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে ২৩টি প্রকল্পের কাজ হাতে নিয়েছি। প্রকল্পগুলো হলো- গজরা ইউনিয়নের মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থানের জন্য সেলাই মেশিন বিতরণ, খাগকান্দা কবির মিয়ার বাড়ীর সামনে ও টরকী এওয়াজ হযরত আলী প্রধানের বাড়ীর সামনে গভীর নলকূপ স্থাপন, মৈষাদী মান্নান সরদারের বাড়ীর দক্ষিণ পাশে রাস্তায় কালভাট নির্মান, পুর্ব রায়েরদিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আসবা পত্র সরবরাহ, গজরা হাবিব উল্লাহর বাড়ী দক্ষিণ পাশে ক্যানেলের উপর পানি নিষ্কাশনের জন্য কালভাট নির্মান, গজরা ইউনিয়নের বিভিন্ন বিদ্যালয়ে পানি বিশুদ্ধকরন জার সরবরাহ, গজরা ইউনিয়ন পরিষদ অফিস কক্ষের জন্য আসবাব পত্র সরবরাহ, গজরা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে পুকুর ভরাট, কৃঞ্চপুর খাঁন বাড়ীর উত্তর পাশে নয়াকান্দি সংযোগ রাস্তায় কালভার্ট নির্মান, বৈদ্যনাথপুর সরকার বাড়ী হইতে কৃঞ্চপুর কালা মিয়ার বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা নির্মান, রাজুরকান্দি ঈদগাঁ সংলগ্ন রাস্তা হইতে ফকির বাড়ী হইয়া খাগকান্দা জামে মসজিদ ও আদম আলী প্রধানের বাড়ীর সামনে দিয়া আলী আর্শাদ প্রধানের বাড়ীর দক্ষিণ পাশে পাকা রাস্তা পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার, রাজুরকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হইতে হইতে রাজুরকান্দি ঢালী বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা মেরামত, কৃষ্ণপুর ক্যানেল হইতে নয়াকান্দি নূরু মেম্বারের বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা নির্মান, রায়েরদিয়া জায়েদ আলী প্রধানের বাড়ী হইতে পুলিশ ফকিরের মাজার পর্যন্ত রাস্তা মেরামত, টরকীকান্দা সোনামিয়া মার্কেট সংলগ্ন ওয়াপদার ক্যানেল হইতে টরকী এওয়াজ দুলালের বাড়ী হইয়া গনেশের বাড়ীর মোড় পর্যন্ত রাস্তা মেরামত, কৃঞ্চপুর মুকবিল সরদারের বাড়ীর পাশে রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, গজরা মুন্সী বাড়ী মসজিদ সংলগ্ন রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, রায়েরদিয়া ছাত্তার মেম্বারের বাড়ী সংলগ্ন রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, কৃঞ্চপুর দর্জি বাড়ীর পাশে রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, কৃঞ্চপুর মসজিদের পাশে রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, মৈষাদী মোসারফ মাষ্টারের বাড়ীর পাশে রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন, নজর মোঃ কান্দা রাস্তার পাশে স্টীক সোলার স্থাপন ও ৯২নং গজরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে রাস্তায় স্টীক সোলার স্থাপন। এ ছাড়াও ব্যক্তিগত তহবিল থেকে অনেক প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন তিনি। এসব প্রকল্পগুলো কাজ সম্পন্ন হলে পুণরায় নতুন প্রকল্পের কাজ হাতে নেওয়া হবে বলেও জানান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হানিফ দর্জি।
গজরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সানাউল্লা মোল্লা বলেন, আমাদের ইউনিয়নের উন্নয়ন এগিয়ে নিতে আমরা দলীয় নেতৃবৃন্দ সহযোগীতা করছি। আমরা চাই ত্রাণ মন্ত্রী মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে মতলব উত্তরের মধ্যে সব ইউনিয়নের আগে আমাদের গজরা ইউনিয়নের উন্নয়ন কাজ সমাপ্ত হোক।
গজরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বলেন, গজরা ইউনিয়নের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নে ছাত্রলীগ সবসময় চেয়ারম্যানের পাশে আছে। আমরা যেকোন বিষয়ে আমাদের সহযোগীতা প্রয়োজন হলে সহযোগীতা করবো। আমাদের ইউনিয়নকে আমরা একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে দেখতে চাই।