আজ  শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

গৃহবধূ গণধর্ষণের প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ

 

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৪ নং রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের লক্ষ্মীরচরে গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনায় ধারাবাহিক ভাবে চাঁদপুরে বেশ কয়েকটি পত্রিকা সহ ইলেকট্রনিক্স ও অনলাইন পত্রিকায় যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তার একাংশের প্রতিবাদ জানিয়েছেন মৃত নজরুল ইসলাম মিজির ছেলে রুহুল আমিন মিজি।
তার প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করেন,গণধর্ষণের ঘটনায় ৪ জনের নাম ও অজ্ঞাত দুজনকে আসামী করে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে যার মামলা নং-মামলা নং ৩০,তারিখ-২৩/৬/২০।
মামলার আসামিরা হলো, ভুদাই গাজীর ছেলে বাবুল গাজী,শোবহান মল্লিকের ছেলে ফিরোজ মল্লিক, জাহাঙ্গীর প্রধানের ছেলে মোস্তফা প্রধানিয়া, শফী প্রধানিয়া ছেলে সবুজ প্রধানীয়া।
কিন্তু মামলার আসামি না হয়ে ঘটনাস্থলে না থেকেও ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি।একটি কুচক্রী মহল সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে আমার ছবিটি ফেসবুক থেকে নামিয়ে তাদেরকে দিয়ে আসামি সাজিয়ে ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট মিডিয়া ও অনলাইন মিডিয়াতে ফলাওভাবে প্রকাশ করেছেন। এতে করে আমার মান-সম্মানে চরমভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়।
আমার বাড়ি রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন হলেও দীর্ঘদিন যাবৎ আমি দুবাই প্রবাসী ছিলাম। বিদেশ থেকে দেড় বছর আগে এসে শহরের কোড়ালিয়া রোডে বাড়ি করে নতুন রাস্তা ভূঁইয়া মার্কেটে কাপড়ের দোকান দিয়ে ব্যবসা করছি। এছাড়া রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি।
আমার বাবা নজরুল ইসলাম ছিলেন রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের একজন সম্মানিত ব্যক্তি ছিলেন।
আমার সম্মান নষ্ট ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য একটি কুচক্রী মহল সাংবাদিকদের আমার ছবিটি দিয়ে আসামি আখ্যা দিয়ে এই মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছে। এই সংবাদে আমার নাম না থাকলেও ছবিটি দিয়ে আমাকে কলুষিত করেছে। তাই আমি এই সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।