আজ  শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

গ্রামপুলিশকে পোশাক-সাইকেল-লাঠি-বাঁশি দিতে নতুন আদেশ

 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট |

ঢাকা: গ্রামপুলিশের (দফাদার ও মহল্লাদার) পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার।
সম্প্রতি ইউনিয়ন পর্যায়ে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দফাদার ও মহল্লাদারদের সরঞ্জমাদি নির্ধারণ করে আদেশ দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

স্থানীয় সরকার বিভাগের (ইউপি-২ শাখা) উপসচিব মোহাম্মদ তানভীর আজম ছিদ্দিকী স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, দেশের ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে কর্মরত গ্রামপুলিশকে পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জামাদি সরবরাহ করার জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।
এ হিসেবে প্রতি বছর দুইটি জামা, দুইটি প্যান্ট (জামা- একটি ফুল, আরেকটি হাফ নীল রঙের এবং প্যান্ট খাকী রং) দেওয়া হবে তাদের। এছাড়া চৌকিদারদের জন্য লাল রঙয়ের সোল্ডার ব্যাচ, ইউনিয়ন কমান্ডার/দফাদারদের জন্য সোল্ডার ব্যাচে কালো কাপড়ের দুইটি রিবন এবং তাদের সবাইকে একটি করে বেল্ট দেওয়া হবে।
তারা প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর মাথার ক্যাপ পাবেন মনোগ্রামসহ। একইসঙ্গে নারী পুলিশের মতো নারী গ্রামপুলিশকেও পোশাক ও সরঞ্জামাদি দেওয়া হবে।
শীতের জন্য প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর একটি জ্যাকেট এবং উলের জামা ও নারী পুলিশের জন্য কার্ডিগান সরবরাহ করা হবে।
প্রতি দুই বছর পর পর এক জোড়া উন্নতমানের চামড়ার জুতা (মোজাসহ) এবং প্রতি বছর উন্নতমানের কাপড়ের এক জোড়া জুতা দেওয়া হবে।
এছাড়া প্রতি তিন বছর পর পর একটি রেইনকোট দেওয়া হবে তাদের। একইসঙ্গে প্রতি তিন বছর অন্তর অন্তর খাতা-কলম, অফিসের কাগজপত্র, জামা কাপড় বহন করার জন্য একটি সাইড ব্যাগও দেওয়া হবে।
প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর চার দশমিক ৫০ ভোল্টের উন্নতমানের একটি চার্জার টর্চলাইট এবং একটি ছাতা (গ্রামপুলিশ মনোগ্রামসহ) সরবরাহ করা হবে।
প্রতি ২ বছর অন্তর অন্তর একটি লায়নার বাঁশি এবং একটি বেতের লাঠি দেওয়া হবে তাদের।