আজ  মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরের বহরিয়া রণক্ষেত্র, ৩ ঘণ্টাব্যাপী রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ১৫,

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০ নং লক্ষিপুর মডেল ইউনিয়ন এর বহরিয়া বাজারে আবারো রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। প্রায় তিন ঘন্টাব্যাপী রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে দুই পক্ষের প্রায় ১৫ জন গুরুতর আহত হয়েছে।
আহতদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে তাদেরকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।
সোমবার রাত ১১ টায় বহরিয়া বাজারে ও শ্রীরামপুর গ্রামে দফায় দফায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।
১০নং লক্ষিপুর মডেল ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান সেলিম খানের লোকদের সাথে প্রতিপক্ষ হোসাইন বেপারী সমর্থকদের সাথে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
এই সংঘর্ষে ২০টি দোকান ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর করায় প্রায় ২০ লক্ষ টাকা ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।
রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত আলাল মল্লিক, নাসির খান, সুমণ খান, আরাফাত, নান্টু মিজি, রুবেলকে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে।
বাকি আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে চলে যান।
বহরিয়া বাজারে আবারো যেকোনো সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে, ঘটতে পারে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।
প্রত্যক্ষদর্শিরা জানায়,ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর ও ব্যানার পেস্টুন পোড়ানোর ঘটনার দোহাই নিয়ে পুনরায় এই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।
দীর্ঘ সময় দুই পক্ষের মাঝে এ সংঘর্ষ হওয়ায় স্থানীয় ব্যবসায়ীদের দোকানপাট ভাঙচুর সহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
শান্ত বহরিয়া বাজার আবার অশান্ত হয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনায় অনেকে আহত হওয়ার কারণে জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
এই ঘটনাটি যারা ইন্দন দিয়েছে ও এর সাথে যারা জড়িত রয়েছে তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান সচেতন মহল।