আজ  বুধবার, ৫ আগস্ট, ২০২০

চাঁদপুরে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ পরীক্ষাগার উদ্বোধন করলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি

 

মোঃ আরিফ হোসেন
বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আক্রান্ত। এই রোগ শনাক্ত করার প্রয়োজনীয় পরীক্ষাগারের সংকট থাকা সত্ত্বেও চাঁদপুরে স্থাপিত হল করোনা ভাইরাস সনাক্তকরণ পরীক্ষাগার। আর সেটি সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী চাঁদপুর-৩ আসনের মাটি ও মানুষের নেত্রী আলহাজ্ব ডাক্তার দীপু মনি এমপির কারণে।
চাঁদপুর জেলার মানুষের এখন থেকে আর কোভিড-১৯ তথা করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট পেতে চব্বিশ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে না। দিনের রেজাল্ট দিনেই পেয়ে যাবে। ১২ ঘণ্টার মধ্যেই নমুনা প্রদানকারীরা নিশ্চিত হয়ে যাবে তারা করোনায় আক্রান্ত কি না। আর সেটি সম্ভব হলো চাঁদপুরে কোভিড-১৯ শনাক্তকরণ পরীক্ষাগার উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে।

২৭ জুলাই (সোমবার) বিকেলে চাঁদপুর শহরের নতুনবাজারস্থ কদমতলা এলাকায় পৌর মার্কেটে ভাষাবীর এমএ ওয়াদুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের নামে বরাদ্দকৃত ফ্ল্যাটে ফিতা কেটে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এটি উদ্বোধন করেন। চাঁদপুর মেডিকেল কলেজ ও ভাষাবীর এমএ ওয়াদুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের যৌথ উদ্যোগে এ ল্যাবটি স্থাপিত হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে ডাঃ দীপু মনি বলেন, শুধু চাঁদপুর জেলা নয় পাশবর্তী জেলর মানুষরা তাদের প্রয়োজনে এই ল্যাব ব্যাবহার করতে পারবেন।আমাদের এই করোনা পরিস্থিতির সময়ে মানুষের যাতে ভোগান্তি কম হয় করোনা পরিক্ষার পর যথা সময়ে দ্রুত চিকিৎসা সেবা দিতে পারি সে জন্যই একটি ল্যাব থাকা মানুষের দাবী ছিল। আমরা আমাদের সাধ্যমত চেষ্টা করেছি, ভাষাবীর এম এ ওয়াদুদ মেমোরিয়াল ট্রাস্টের মাধ্যমে চাঁদপুর মেডিকেল কলেজও আমাদের সাথে রয়েছে।

আমাদেরকে আর টি পিসিআর মেশিনসহ নানারকমভাবে কারিগরি সহায়তা দিয়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে চট্টগ্রাম ভেটেরেনারি ও এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়। এ কাজে সকলের সহযোগিতার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ আমার প্রানপ্রিয় নেত্রী দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি। কারণ, সদর হাসপাতালে অক্সিজেন প্ল্যান্টটি করার কথা জানালে তখনই তিনি বলেছেন আর্থিক সহযোগিতা দেবেন। সেই উৎসাহতেই আমি এই পিসিআর ল্যাব করার বিষয়টি চিন্তা করতে পেরেছি, না হলে হয়ত সাহস করতে পারতামনা। এ সময় তিনি তাঁর বড়ভাই ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্সেস ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডাঃ গৌতম বুদ্ধ দাশের অসামান্য অবদানের কথা তুলে ধরেন।