আজ  বৃহঃবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে সড়ক ও জনপদের রাস্তার নিচে বোরিং করে পাইপ স্থাপন, কর্তৃপক্ষ উদাসীন

চাঁদপুর সড়ক ও জনপদের রাস্তার নিচে মাটি সরিয়ে বোরিং করে টয়লেটের টাংকির পাইপ স্থাপন করেছে ওহীদ বেপারী নামে আমেরিকান প্রবাসী।
চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের মদনা গ্রামের সড়ক ও জনপদের চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ রোডের নিচে মাটি সরিয়ে রাতের আঁধারে ময়লা ফেলানোর পাইপ স্থাপন করেছেন।
সড়ক ও জনপদের কোন ধরনের অনুমতি না নিয়ে ও সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে পেশী শক্তি ব্যবহার করে জোরপূর্বক ভাবে সরকারি রাস্তার নিচ দিয়ে বোরিং করে এই কাজটি করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
হরিনা ফরিদগঞ্জ মহাসড়কের এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত মালবাহী ট্রাক, বাস ও বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। দীর্ঘ বছর এই রাস্তাটি অবগত থাকার পর সড়ক ও জনপথ রাস্তাটি পুনঃসংস্কার করেছেন।
কিন্তু সড়কের রাস্তার নিচ দিয়ে বোরিং করে পাইপ স্থাপন করায় উপর দিয়ে রাস্তা ফেটে নিচে ডেবে যাচ্ছে।
সড়ক ও জনপদের কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে দিনের পর দিন সরকারি জায়গা দখল ও রাস্তার নিচ দিয়ে বোরিং করে পাইপ স্থাপন করার কাজ করা হচ্ছে।
রবিবার দুপুরে গিয়ে দেখা যায়, এলাকার মৃত করিম বেপারীর ছেলে আমেরিকান প্রবাসী ওহিদ বেপারী একটি আলিশান বাড়ির কাজ করছেন।
তার বাড়ির সেফটি ট্যাঙ্কির পাইপ সড়ক ও জনপদের রাস্তার আসে একটি খালে ভিতরে টয়লেটে ময়লা পানি ফেলানোর জন্য পাইপ লাগানো হয়েছে।
স্থানীয়রা বাধা দেওয়া সত্ত্বেও ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারের নাম ভাঙ্গিয়ে সড়ক ও জনপথ এর কোন অনুমতি না নিয়ে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে এই আমেরিকান প্রবাসী ওহিদ ব্যক্তিস্বার্থে কাজটি করেছেন।
এই বিষয়ে আমেরিকান প্রবাসীর ছেলে মাসুদ বেপারী জানান, স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বার অনুমতি নিয়েই সড়কের রাস্তার নিচ দিয়ে মাটি সরিয়ে পাইপ লাগানো হয়েছে। সড়ক ও জনপথের কোন অনুমতি নেওয়া হয়নি। স্থানীয় ১ মিনি ড্রেজার ব্যবসায়ীকে দায়িত্ব দেওয়া হলে সে বোরিং এর কাজটি করে দিয়েছে।
আমেরিকান প্রবাসী ওহিদ সাংবাদিক আসার খবর শুনে ঘটনাস্থলে এসে উত্তেজিত হয়ে বলেন, আমার জায়গায় আমি কাজ করি কার বাবার কি। রাস্তার নিচ দিয়ে পাইপ স্থাপন করতে কোন সড়কের অনুমতি নেওয়া প্রয়োজন নেই।
কাজে কেউ বাধা দিলে তাদেরকে দেখে নেব, কাজ করার সময় ইউপি চেয়ারম্যানের অনুমতি নিয়েছি কোন সমস্যা নেই।
এই বিষয়ে চান্দ্রা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান খানজাহান আলী কালু পাটোয়ারী জানান, কিছুদিন পূর্বে হরিনা ফরিদগঞ্জ সড়ক ও জনপদের রাস্তাটি নতুনভাবে সংস্কার কাজ করা হয়।
এই রাস্তাটি দিয়ে অনেক যানবাহন চলাচল করেন। সড়কের রাস্তা বোরিং করে স্থাপন করার কোনো সুযোগ নেই। সড়ক ও জনপথের কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে এই কাজটি করছেন।
এই বিষয়টি সড়ক ও জনপদের কর্মকর্তারা দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন যাতে করে আর কোনদিন এই ধরনের ঘটনা না করতে পারে।
স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, মদনা গ্রামের করিম বেপারী ছেলে ওহীদ বেপারী বিদেশ যাওয়ার পূর্বে এলাকায় রিকশা চালাতেন। তার ভাই ভিবি লটারি পেয়ে আমেরিকা গিয়েছেন। পরে রিকশাচালক ভাইকে আমেরিকা নেওয়ার পরেই তার ভাগ্য খুলে যায়।
বিদেশি টাকার গরম দেখিয়ে এলাকার অনেক মানুষের জায়গা জবর দখল করেছেন।
সড়কের রাস্তার নিজ দিয়ে পাইপ এনে তার বাড়ির সামনে টেলু ঢ়ারির জায়গা দখল করে সেখানে বক্স তৈরি করে সংযোগ দেয়।
এ সময় টেলু ঢ়ারি কাজে বাধা দিলে তার সাথে প্রবাসী ওহিদ বেপারীর বাক বিতন্ডা সৃষ্টি হয়। তার পরেও সে জোর খাটিয়ে অন্য জায়গা দখল করে সেফটি টাংকি পাইপ লাগিয়েছেন।
এ বিষয়টি সড়ক ও জনপদের কর্মকর্তা অবহিত করা হলে তারা বলেন, আমরা খুব দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ব্যবস্থা গ্রহণ করব ‌। যে এই কাজটি করেছে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শাহরিয়ার খান কৌশিক, মো,০১৭১৩৬৮৮৯২০

অন্যান্য সংবাদঃ