আজ  শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের চেষ্টা, বাধা দেওয়ায় যুবতীকে মারধর

 

মাসুদ হোসেন//

সদর উপজেলার ৮ নং বাগাদী ইউনিয়ন এর সাহেববাজারে জোরপূর্বক জায়গা দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের চেষ্টা করেছে।

সীমানা প্রাচীর নির্মাণের সময় বাধা দিলে মাসুদা আক্তার নামে এক যুবতীকে জিআই পাইপ দিয়ে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে সাহেব বাজার এলাকার বেপারি বাড়ির সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার এসআই দিলীপ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলাকারীদের ধাওয়া করে।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, ৯ বছর পূর্বে বেপারি বাড়ি মোঃ আব্দুল মালেক বেপারী তার স্ত্রী ফিরোজা বেগমের ৫ শতাংশ জায়গা তার ভাতিজা শাহজাহান বেপারীর কাছে বিক্রি করে।
বিক্রির পরেই তাদের ৫ শতাংশ জায়গা বুঝিয়ে দেওয়া হয়।
নয় বছর পর দলিলের সর্দি অনুযায়ী জায়গা না নিয়ে নিজেদের মনমতো আব্দুল মালেক বেপারী সম্পত্তি জোরপূর্বক দখল করার চেষ্টা করে। কিছুদিন পূর্বে শাহজাহান বেপারী ও তার লোকজন নিয়ে রাতের আঁধারে জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে।
ওই ঘটনায় থানায় অভিযোগ হলে মডেল থানার এএসআই আনোয়ার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দেয় ও সমস্যার সমাধান করার জন্য উভয় পক্ষকে বলেন।
কিন্তু শাহজাহান বেপারী বৃহস্পতিবার ভোর থেকে ইট, বালু, সিমেন্ট দিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে আব্দুল মালেক বেপারীর সম্পত্তি জোর করে দখলের চেষ্টা করে।
এসময় মালেক বেপারীর মেয়ে মাসুদা বেগম বাধা দিলে শাহজাহান বেপারী জিআই পাইপ দিয়ে তাকে মারধর করে।
এ ব্যাপারে সরকারি পুলিশ সুপারকে বিষয়টি জানালে মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দখলবাজদের ধাওয়া করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
এ ঘটনায় সম্পত্তির মালিক আব্দুল মালেক ব্যাপারে জানায়, ৯ বছর পর স্ত্রীর সম্পত্তি বিক্রি করে বুঝিয়ে দিলেও প্রতিপক্ষ শাহজাহান বেপারী জোরপূর্বক জায়গা দখল করার চেষ্টা করে। এই ঘটনায় মডেল থানা ও পুলিশ সুপার কার্যালয়ে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। পেশী শক্তি ব্যবহার করে তারা এলাকায় জবরদখল করার চেষ্টা করছে।শাহজাহান বেপারী আমাকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে যে কোনো ভাবে এই জায়গা দখল করবে বলে হুংকার দিচ্ছি।