আজ  শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চান্দ্রায় চোর সন্দেহ মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে জখম

 

চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নের মধ্যে মদনা গ্রামের ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা সেখান্তর খানের ছেলে মোঃ শাহিন খান (১৬)কে মোবাইল চোর সন্দেহ পিটিয়ে জখম করা হয়।সে ফরিদগঞ্জ উপজেলা হাঁসা ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার ১০ম শ্রেণির ছাত্র।
গতকাল মঙ্গলবার রাত ৮ টায় চান্দ্রা বৌদ্ধগো ঘাট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।আহত শাহিনের জেঠি কোহিনূর বেগম জানান, আমাদের বাড়ির বংশ মর্যাদা আছে।আমাদের বাড়ির ছেলেরা এ কাজ করতে পারেনা।গতকাল সন্ধায় শাহিন সহ তাঁর বন্ধুরা মিলে পাটওয়ারী বাড়ির সামনে একটি বিলের মাঝে গল্পগুজব করতে ছিল। হঠাৎ করে ইসমাইল পাটওয়ারী ছেলে শিহান পাটওয়ারীর মোবাইলে হারিয়ে গেলে সে শাহিনকে সন্দেহ করে তাঁর বাড়ির সামনে টেনে হেঁচড়ে এনে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে তাঁকে বেধম ভাবে তাঁর শরীলে আঘাত করে।সাহিনের বাবা সেখান্তর খান বলেন আমার ছেলের ওপর যারা হামলা করছে তাঁরা হলেন,মোঃবেলায়েত পাটওয়ারী, তাঁর ভাই মোঃ দেলোয়ার হোসেন পাটওয়ারী,পিতা মোঃ মকবুল পাটওয়ারী,মোঃরুবেল পাটওয়ারী পিতা ইউনুস পাটওয়ারী,পগু পাটওয়ারী পিতা ইদ্রিস পাটওয়ারী,সেলিম গাজী পিতা হাকিম গাজী সহ আরো অনেকে মিলে আমার এ অবুজ শিশুটির উপর মানশিক নির্যাতন করছে। আমি এর সুস্ঠ বিচার চাই।
এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী জানান, আমাকে ফোনের মাধ্যমে সেখান্তর খানের ছেলের উপর মোবাইল চোর সন্দেহ করে তাঁর উপর হামলা করছে পার্শ্ববর্তী ইসমাইল পাটওয়ারী ছেলে এবং ঐ বাড়ির লোকজনেরা। আাসলে ঘটনাটি খুবই দুঃখ জনক। আামি বিষয়টি উভয় পক্ষকে ডেকে সমাধান করে দিব।

এঘটনাটি ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার আক্তার হোসেন জানান, আমি এঘটনাটি জেনেছি,শিশুটির উপর যে ভাবে অত্যাচার করা হয়েছে আসলে এঘটনাটি একটি ন্যাক্কার জনক ঘটনা,আমি তাঁর ছেলেকে সদর হাসপতালে ভর্তি করার জন্য পাঠিয়ে দিয়েছি।আাগে ছেলিটির চিকিৎসা হোক তাঁর পরে আমরা দুই পক্ষকে ডেকে সমাধান করে দিব।