আজ  শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চান্দ্রা ইউনিয়নে ওয়াজ মাহফিলে এসে ছারছীনার মুরিদের মৃত্যু

 

মোঃ হোসেন গাজী, চাঁদপুর থেকে
চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়ন চান্দ্রা বাজার ইয়াকুব আলী স্মারক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ছারছীনা পীর সাহেবের মাহফিলে এসে ১৩ নং হানারচর হরিনা ফেরিঘাটে মোশারফ হোসেন হাওলাদার (৭০) নামে মুরিদের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) ভোরে তিনি বাড়িতে যাওয়ার অপেক্ষায় ওই এলাকার হরিনা ফেরিঘাট মেঘনা পাড়ে তার মৃত্যু হয়। মোশারফ হোসেন সদর উপজেলার ইব্রাহীমপুর ইউনিয়নের মেঘনা নদীর পশ্চিম পাড়ের চরফতেজংপুর গ্রামের হাওলাদার বাড়ীর মৃত ইউনুছ হাওলাদারের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মোশাররফ হোসেন রাতে মাহফিলে যোগ দেওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ী থেকে আসেন। মাহফিলে আগত অতিথি ছারছীনার পীর শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ্ এর সাথে তিনি সাক্ষাৎ করেন এবং নিজে ইবাদাতের জন্য সুরা ও দোয়া শুদ্ধ পারেন কিনা তা পাঠ করে পীর সাহেবকে শুনান। মাহফিল শেষে বাড়িতে যাওয়ার জন্য তিনি হরিনা ফেরিঘাটে গিয়ে দেখেন তার সাথে আসা সবাই চলেগেছেন। তিনি আর ট্রলার পাননি। পরক্ষণে ঘাটেই অপেক্ষা করেন। পরবর্তীতে তিনি ঘাটেই মৃত্যুবরণ করেন।
স্থানীয় লোকজন আরো জানান, ভোরে মোশাররফ হোসেনকে জায়নামাজের মধ্যে সেজদারত অবস্থায় দেখতে পান। কাছে গিয়ে জীবীত না মৃত্যু বুঝতে না পেরে হানারচরের কয়েকজন যুবক উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। পরে হাসপাতালেরর কর্তব্যরত চিকিৎসক নুরে আলম মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

মোশারফ হোসেনের মৃত্যুর খবর পেয়ে ছারছীনার অন্যান্য মুরিদ ও নেতৃবৃন্দ হাসপাতালে ছুটে আসেন এবং হাসপাতাল থেকে নিয়ে ওয়ারলেছ এলাকায় নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন ছারছীনার পীর শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ সফর সঙ্গী হযরত মাওলানা রুহুল আমীন।
পরে মরহুমের মরদেহ তার সন্তান দাউদ ও শরীফের হাতে হস্তান্তর করেন চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আউলাদ হোসেন।