আজ  শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জেলা পরিষদের অর্থায়নে হরিপুর মাদ্রাসা ও মসজিদের উন্নয়নের কাজ সম্পন্ন

 

চাঁদপুর জেলা পরিষদের অর্থায়নে গাজীপুর হরিপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সিঁড়ির কাজ ও হরিপুর চৌধুরী বাড়ী জামে মসজিদের সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য রংয়ের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।
জেলা পরিষদের কাছ থেকে মাত্র ২ লক্ষ টাকা অনুদান নিয়ে হরিপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সহ-সভাপতি মোঃ আবুল হাসনাত মুকুট চৌধুরী এত অল্প টাকা দিয়ে মাদ্রাসা ও মসজিদের উন্নয়নের কাজ সম্পন্ন করেছেন।
জেলা পরিষদের অর্থায়ন ছাড়াও তার নিজের পকেটের টাকা ব্যয় করে মাদ্রাসা ও মসজিদের কাজ সম্পূর্ণ করতে পেরেছেন বলে জানিয়েছেন মুকুট চৌধুরী।
তিনি বলেন, চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দা ইউনিয়নের অতি পুরনো স্বনামখ্যাত গাজীপুর হরিপুর নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা। এই মাদ্রাসাটি ১৯০৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় ১১৬ বছরের পুরনো এই মাদ্রাসায় অনেক ছাত্র-ছাত্রী উচ্চশিক্ষিত হয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছেন। এই মাদ্রাসাটি খুবই অবহেলিত ছিল অবশেষে চাঁদপুর ৩ আসনের এমপি শিক্ষা মন্ত্রী আলহাজ্ব দীপু মনির সুদৃষ্টি পড়ায় এখানে এক তলা বিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। বর্তমানে এই মাদ্রাসায় ৭ শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত আছে।
এই মাদ্রাসা দাখিল ও ফাজিল পরীক্ষায় শতভাগ শিক্ষার্থী ভাল রেজাল্ট করেছেন। ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা দিন দিন বেড়ে যাওয়ায় মাদ্রাসার পুরনো একতলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় টিনসেট ভাবে কক্ষ নির্মাণ করা হয়। দোতালায় উঠার জন্য একটি সিঁড়ি প্রয়োজন ছিল অবশেষে জেলা পরিষদের অর্থায়নে সিঁড়ির কাজ সম্পন্ন করা হয় ও হরিপুর চৌধুরী বাড়ী জামে মসজিদের সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য ভিতর ও বাহিরে রংয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।
এই মাদ্রাসার পুরনো ভবনটির জরাজীর্ণ ভাবে রয়েছে যদি এটি পুনঃসংস্কার করা হয় তাহলে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য খুবই ভালো হবে। ঝুঁকির মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা সেই পুরনো ভবনে পাঠদান করছেন। এই মাদ্রাসা ও মসজিদের উন্নয়নের জন্য হরিপুর চৌধুরী বাড়ি পক্ষ থেকে নিজেই সার্বক্ষণিক দেখাশোনার দায়িত্ব করছি। এই মাদ্রাসার উত্তরোত্তর সাফল্য জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।