আজ  শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮

পুলিশের অবহেলায় ধর্ষিত অন্ধ তরুণী, গলার আওয়াজে ধর্ষক শনাক্ত

বিশেষ প্রতিনিধি: ২০ বছরের দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী এক তরুণী শুনতে পান দুই ব্যক্তি তাকে ধর্ষণের ষড়যন্ত্র করছে। তিনি এ কথা জানালে পুলিশ অভিযুক্তদের শুধু সতর্ক করে ছেড়ে দেয়। এর পর তাকে তুলে পাশের একটি বাড়িতে নিয়ে গণধর্ষণ করে অভিযুক্তরা।

আগেরবার দায়িত্বে গাফিলতি করলেও ধর্ষণের পর তৎপর হয় পুলিশ। তারা তরুণীর কাছ থেকে বিস্তারিত শোনেন। তখন তরুণী জানান তাকে তিনজন মিলে গণধর্ষণ করেছে।

এর পর পুলিশ ৪৫ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। কিন্তু তরুণী দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী হওয়ায় ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করতে পারছিলেন না।

তবে ওই ব্যক্তির গলার আওয়াজ শোনার পর তরুণী তাকে ধর্ষক হিসেবে শনাক্ত করেন। বাকি দুই ধর্ষকের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

ভারতের রাজধানী দিল্লির দেশবন্ধু গুপ্তা রোডে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করা হয় বলে পুলিশ জানায়।

জানা গেছে, গত ৪ মে তরুণীর মা পানি আনতে গেলে তাকে ধর্ষণের ষড়যন্ত্র করে দুই ব্যক্তি। এ কথা শুনতে পেয়ে তিনি ঘটনাটি পুলিশকে জানান।

কিন্তু পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার না করে সতর্ক করে ছেড়ে দেয়। এর পর তারা আরও এক ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে তরুণীকে গণধর্ষণ করে।

পুলিশ জানায়, গত বছর এক দুর্ঘটনায় দৃষ্টিশক্তি হারানো ওই তরুণীকে ধর্ষণের পর মেডিকেল পরীক্ষার পর কাউন্সেলিং করানো হচ্ছে।

চোখে দেখতে না পাওয়ায় তাকে অভিযুক্তের গলার আওয়াজ শোনানো হয়। গলার আওয়াজ শুনেই তিনি এক ধর্ষককে শনাক্ত করতে পারেন।

বাকি দুজনকে গ্রেফতার করার পর একই পদ্ধতিতে ওই তরুণীকে দিয়ে শনাক্ত করানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।