আজ  মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮

ফাগুনের বর্ষায় স্বস্তি ও দুর্ভোগ

D-
এম. পারভেজ পাটোয়ারী ঃ গ্রীষ্মের আগেই বর্ষা চলে এসেছে? অথচ বসন্তও শেষ হয়নি। গতরাত থেকে সারাদেশে যে বৃষ্টির ধারা চলছে, তাতে দেশবাসীর মনে এমনই এক বিস্ময় জন্মেছে। তবে আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক এতে খুব একটা অস্বাভাবিক কিছু দেখছেন না। তিনি জানালেন, পুবালী বাতাস ও পশ্চিমা বাতাসের সংমিশ্রনে সারাদেশেই বৃষ্টি হচ্ছে। এমন বৃষ্টি মাঝে মাঝেই দেখা যায়। এরপর ঠিকই গ্রীষ্মের খরা অপেক্ষা করছে।
তিনি আরো জানিয়েছেন, আগামীকাল থেকে বৃষ্টি কমে আসবে। গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত হয়েছে কুতুবদিয়ায় ৯০ মি.মি। আর ঢাকাতে হয়েছে ৩৮ মি.মি.।
হঠাৎ এই বৃষ্টিতে ধুলোবালির যন্ত্রণা থেকে কিছুটা স্বস্তি মিললেও সেই সাথে দুর্ভোগেও পড়েছে রাজধানীবাসী। বৃষ্টিতে কারওয়ান বাজার, তেজতুরী বাজার, মুগদা ও বাসাবো এলাকাতে পানি জমে গেছে। এ জন্য যানজট আর জলাবদ্ধতায় দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে তাদের।
এদিক আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, দেশের বিভিন্ন উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ঝড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা জানিয়ে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলো পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচলের নির্দেশনা পেয়েছে। শুক্রবার এ সর্তকতা জারি করে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর।