আজ  শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭

বাংলাদেশের মিস ওয়ার্ল্ড দ্বিতীয় রানারআপও বিবাহিত!

333 444

অনলাইন সংস্করণ: মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার যৌথভাবে দ্বিতীয় রানার্স আপ হয়েছেন রুকাইয়া জাহান চমক। এবার জানা গেল তিনি বিবাহিত! ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে চমকের বিয়ে হয়। তার স্বামীর নাম খান এইচ কবির। বিয়ের হয়ার পর ২০১৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি চমকের স্বামী ফেসবুকে ম্যারিড ইউথ চমক দেন। পরের বছর তারা স্বামী-স্ত্রী প্রথম বর্ষপূর্তি পালনও করেন!

সোশ্যাল মিডিয়াতে চমকের স্বামী কবিরের বিয়ের রিলেশন স্ট্যাটাস ভাইরাল হয়েছে! সেখানে চমককে নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে ক্যাপশনও দিয়েছেন তার স্বামী কবির। এছাড়া দুটি সেলফি পোস্টও করা হয়েছে। স্ট্যাটাসে চমকের স্বামী দিয়েছেন চমকের সাথে তার বিয়ে হয়েছে ২০১৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি।

চমকের বিয়ের বিষয়টি অন্তর শোবিজ কর্তৃপক্ষ বিয়ের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। কর্তৃপক্ষ বলছে, আমরা জেনেছি চমক বিবাহিত। সেজন্য তাকে যৌথভাবে তৃতীয় করা হয়েছে। নইলে তাকে আমরা দ্বিতীয় করতাম। এর আগে চমক বলেছে ছেলেটি নাকি তার প্রেমিক। কিন্তু আমরা অনুসন্ধানে বের করেছি সেই চমকের স্বামী। স্বামীর সঙ্গে রাজধানীর উত্তরায় থাকে। তবে চমক বরিশালের মেয়ে।’

miss

এ ব্যাপারে চমকের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি। তবে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ প্রতিযোগিতার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রতিযোগীও চমকের বিবাহিত এই খবরটি নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া চলচ্চিত্রে অভিনয় করা চমকের এক ফেসবুক ফ্রেন্ড বলেছেন, ‘সে (চমক) বিবাহিত বলেই জানি আমি। ২০১৪ সালে নভেম্বরে বিয়ের আগে আমাদের প্রায়ই দেখা হতো। বিয়ের পর আর যোগাযোগ নেই।’

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ অনুষ্ঠানের শর্ত হচ্ছে, প্রতিযোগী অবশ্যই অবিবাহিত হতে হবে। বিবাহিত, ডিভোর্স কেউই অংশ নিতে পারবেন না। সেই তথ্য গোপন করার অপরাধে জান্নাতুল নাঈম এভ্রিলের বিজয়ীর মুকুট ফিরিয়ে নেয়া হয়। এরপর বিজয়ী ঘোষণা করা হয় জেসিয়া ইসলামকে।

কিন্তু এবার দ্বিতীয় রানার্স আপ চমকের বিয়ের খবর ভাইরাল হলে পুরো আয়োজনটি নিয়েই স্বচ্ছতার অভিযোগ তুলছেন সবাই। পাশাপাশি নিয়ম না মেনে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া চমককে তৃতীয় স্থান দেয়ায় সে নিয়েও চলেছে সমালোচনা।