আজ  সোমবার, ২০ মে, ২০১৯

মতলব উত্তরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর ভাইস চেয়ারম্যান ইমনের বাড়িতে হামলা-ভাংচুর : আহত ৭

Matlab uttar pic 1

ষ্টাফ রিপোর্টার ॥ মতলব উত্তরের দূর্গাপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকারের বাড়িতে হামলা-ভাংচুর করা হয়। এসময় অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। এরআগে বিকালে দূর্গাপুর বাজারে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কবির হোসেন নামে একজন গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় মহন নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আহত কবির হোসেনের ভাই বোরহান উদ্দিন জানান, ভাইস চেয়ারম্যান ইমন সরকারের ভাই রতন, আলমাছ সরকারের ছেলে সুজন, সোহেল, মনির হোসেন সরকারের ছেলে মহনসহ কয়েকজন আমার ভাই কবির হোসেনের উপর বাজার থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। মাথায় আঘাত করে ও পিছনের বাহুতে কোপ দেয়। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছি। এদিকে এ ঘটনার জেড় ধরে এলাকার মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম সরকার ইমনের ৩ তলা বিশিষ্ট বাড়িতে হামলা দেয়। দরজা-জানালা ও ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। বাড়িতে থাকা রতনের স্ত্রী ফেরদৌসী বেগম জানান, একই গ্রামের লালমিয়ার ছেলে বোরহান ও তার ভাগিনা নাহিদসহ ৫০-৬০ জন এসে বাড়িতে হামলা দিয়েছে। ঘরের সকল জিনিসপত্র ও একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করেছে। আলমিরাতে থাকা নগদ ৫ লাখ টাকা ও স্বর্ণাংকার নিয়ে গেছে। ইমনের মাতা সামছুন্নাহার জানান, তারা আমাদের মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে আমার বাড়িতে হামলা দিয়েছেল। তাদের বিরুদ্ধে মামলা পক্রিয়াধীন আছে। এদিকে খবর পেয়ে মতলব উত্তর থানার এসআই মনির হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। মহন নামে একজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। এসআই গোলাম মোস্তফা জানান, মারামারির ঘটনা ঘটেছে। মামলা হবে। এ ঘটনায় মহন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম ইমন বলেন, আমি বাড়ি নেই। এ সুযোগে আমার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা দিয়ে ভাংচুর করেছে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবী করছি।