আজ  মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮

মতলব উত্তরে ৯ জেলের দন্ড

M4
মতলব প্রতিনিধি :
চাঁদপুরের মতলব উত্তরে গত দুইদিনে ৮ জেলেকে কারাদন্ড ও ১ জেলেকে অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার সুজাতপুর এলাকায় একটি ট্রাকে করে জাটকা বহন করার সময় ১১ টি ড্রামে প্রায় ১৮ মণ জাটকা (ইলিশ), ১টি ট্রাকসহ ৫ জনকে আটক করে পুলিশ।
আটকৃতরা হলেন- উপজেলার মোহনপুর গ্রামের রমজান দর্জির ছেলে মো. খোরশেদ আলম (৩৫), মৃত জয়নাব আলী বেপারীর ছেলে মোঃ ছানাউল্লাহ (৪৫), মৃত সিরাজ বেপারীর ছেলে মোঃ নজরুল ইসলাম (৩৫), হানিফ দেওয়ানের ছেলে মোঃ রুবেল (২০) ও উপজেলার পশ্চিম জোড়খালী গ্রামের মোঃ আমির হোসেনের ছেলে মোঃ আল-আমিন (২৭)। আটকৃতদের মোবাইল কোর্ট আইন ২০০৯ এর তফসীলভূক্ত মৎস্য রক্ষা সংরক্ষণ আইন, ১৯৫০ এর ৫ (১) ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে একই আইনে প্রত্যেককে ২ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

M5
এদিকে বুধবার সকালে উপজেলার মেঘনা নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে নিষিদ্ধ সময়ে অভয়াশ্রম হতে জাটকা ইলিশ ধরার অপরাধে ৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, ৪ টি ট্রলারসহ উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের সোলেমান (৫৫) ও তার ছেলে ডালিম (১৯), ছিরন প্রধানের ছেলে মজিবুর রহমান (২০) ও সুলতান প্রধানের ছেলে ওমর আলী (৪২)কে আটক করে মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষণ আইন, ১৯৫০ এর সংশ্লিষ্ট ধারায় ৩ জনকে ১ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়াও সালেমান (৫৫)কে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম।
ইউএনও মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম বলেন, জব্দকৃত ৫ হাজার মিটার জাল নদীর পাড়ে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে এবং ইঞ্জিনসহ নৌকা মাঝ নদীতে ডুবিয়ে দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ইলিশের বাড়ী চাঁদপুরের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য জাটকা মাছ বাঁচিয়ে রাখতে হবে। ইলিশের অভয়াশ্রমখ্যাত চাঁদপুরের ষাটনল হতে লক্ষীপুরের চরভৈরবী পর্যন্ত এলাকায় ১ মার্চ হতে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত জাটকাসহ সকল প্রকার মাছ ধরা, পরিবহণ, ক্রয়-বিক্রয়, মজুদ ইত্যাদি সরকারীভাবে সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।