আজ  শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

যুবলীগের প্রতিটি ইউনিটে সন্ত্রাস, মাদক ও দুনীতিমুক্ত কমিটি গঠিত হবে – কালু ভূঁইয়া

 

মোঃ আরিফ হোসেন
ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্য দিয়ে চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ উপজেলার ৬নং উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের -এর ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
১০ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৪ ঘটিকায় ৬ নং উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মোঃ মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়া।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতি করতে এসে তার পরিবারকে হারিয়েছেন।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক চাঁদপুরের কৃতিসন্তান মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর নির্দেশ অনুযায়ী যুবলীগের প্রতিটি ইউনিটে সন্ত্রাস, মাদক, ভূমি দখলকারী ও দুনীতিমুক্ত কমিটি গঠন করতে হবে। যারা মাদকের সাথে জড়িত, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে, ভূমি দখল করে, যারা দলের প্রভাব খাটিয়ে চাঁদাবাজি করবে এবং যারা দলে অনুপ্রবেশকারী তাদের বাদ দিয়ে কমিটি গঠন করতে হবে। ১৫ই আগস্ট হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ও তার পরিবারকে ঘাতকরা নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমরা আমাদের দলে আর কোন অনুপ্রবেশকারী চাইনা। মনে রাখবেন ২০০৮ সালের পরে যারা দলে এসেছে তারাই অনুপ্রবেশকারী। যারা দলের ত্যাগী নেতা দুঃসময়ে পাশে ছিল তাদের কে কমিটিতে স্থান দেওয়া হবে। যাদেরকে যোগ্য মনে হবে, তাদেরকেই দলের নের্তৃত্বে আনা হবে। যাকে দলের জন্য মনোনীত করা হবে, তার নেতৃত্বেই সকলেক কাজ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন কিছু লোক বিভিন্ন সময় এক একটা গুজব ছড়িয়ে সরকারকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চাচ্ছে। তাদের থেকে সব সময় সতর্ক থাকতে হবে, আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের দেশে আজ উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে।আমরা দেখেছি মহামারী করোনা ভাইরাসে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের কি কিভাবে সাহস যুগিয়েছে। তাঁর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে আজ আমরা অনেকটাই শঙ্কামুক্ত। লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষদেরকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী খাদ্য উপহার দিয়ে নিয়মিত সহায়তা করেছে। আমাদের দেশে একটি লোকও খাদ্যের অভাবে মারা যায়নি।
ওয়ার্ড যুব লীগের কমিটিগুলো করার সময় আমরা নারীদেরকে অধিকতর গুরুত্ব দিব। মাদক ও অন্যান্য অপকর্মের সাথে যারা জড়িত তারা আওয়ামী যুবলীগের লোক হতে পারে না। তিনি সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সর্বস্তরে শৃঙ্খলা বজায় রাখার আহ্বান জানান।

এ সময় বিশেষ অতিথির মধ্যে চাঁদপুর জেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক সালাউদ্দিন বাবর বলেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক চাঁদপুরের কৃতিসন্তান মাইনুল হোসেন খান নিখিল এর নেতৃত্বে সারা বাংলাদেশে আওয়ামী যুবলীগ আজ সুসংগঠিত।আমরা দেখেছি বাংলাদেশ যুবলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নেতৃত্বে সারা বাংলাদেশের যুবলীগ করোনা মহামারি ভাইরাসের খাদ্য সহায়তা নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে ছিল। যার কারনে আজ যুবলীগ সর্বমহলে প্রশংসিত একটি প্রিয় সংগঠন। চাঁদপুর যুবলীগের আহ্বায়ক আলহাজ্ব মোঃ মিজানুর রহমান কালু ভূঁইয়ার নেতৃত্বে যুবলীগ আবার পুনরায় সু সংঘটিত হয়ে প্রাণ ফিরে পেয়েছে আমাদের জমি। আমাদের যুব লীগে কোন অনুপ্রবেশকারীর, চাঁদাবাজ কারী, সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী ও ভূমি দখল কারীদের স্থান হবে না। আর যারা বিএনপি-জামায়াত থেকে অনুপ্রবেশ করতে চায়, তাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে।

ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে মতলব দক্ষিণ উপজেলার যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ জহিরুল ইসলাম আলেকের সঞ্চালনায় সম্মেলনে সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন মতলব দক্ষিণ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক জহির সরকার।

বিশেষ অতিথি মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক ঝন্টু দাস, জেলা যুবলীগের সদস্য অরুপ কর্মকার, ঢালী শুক্কুর, মতলব দক্ষিণ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক , চন্দন সাহা, বাদল নন্দী, উত্তম ঘোষ, আল এমরান চৌধুরী, মোঃ গোলাম মোস্তফা, মোঃ আতাউর রহমান ভিপি, দেওয়ান পারভেজ, শেখ ফজলুল করিম সেলিম সহ আরো অনেক।

সম্মেলনে উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি প্রার্থীরা হলেন, মনির হোসেন বকাউল, মোঃ কামরুল হাসান, এবং সাধারন সম্পাদক প্রার্থীরা হলেন মোঃ আব্দুল কাদের, মানিক মৃধা দিপু। সম্মেলনের পুরাতন কমিটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।