আজ  শনিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৮

রোহিঙ্গা গণহত্যার দায়ে সু চির প্রতিকৃতি সরালো অক্সফোর্ড

7

অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাজ্যের এই বিশ্ববিদ্যালয়টির সেন্ট হিউজ কলেজে তার প্রতিকৃতিমূলক ছবি ছিল। সু চি ১৯৬৭ সালে এখান থেকেই স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন। ওই কলেজ ২০১২ সালে তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি দেয়। এর আগে ১৯৯১ সালে তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান।

কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্তে প্রতিকৃতিটি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়ে কৃর্তপক্ষ।

জাতিসংঘ ইতোমধ্যে বলেছে, মিয়ানমারে যা চলছে তা ‘জাতিগত নিধন’। এর জন্য সু চির ভূমিকাকে দায়ী করা হচ্ছে। সরকারের স্টেট কাউন্সেলর ও শান্তিতে নোবেলজয়ী হয়েও তিনি রোহিঙ্গা নিধনে সায় দিচ্ছেন। কথা বলছেন সামরিক জান্তার ভাষায়।

জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইএমও) বলছে, সহিংসতার শিকার হয়ে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা পাঁচ লাখের বেশি। তবে বেসরকারি হিসেবে এই সংখ্যা সাড়ে ছয় লাখ ছাড়িয়েছে। যাদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু। সহিংসতায় প্রাণ গেছে তিন হাজারের বেশি মানুষের। বেসরকারিভাবে এই সংখ্যা দশ হাজার পার করেছে মধ্য সেপ্টেম্বরেই।

ঘটনার শুরু গত ২৪ আগস্ট দিনগত রাতে রাখাইনে যখন পুলিশ ক্যাম্প ও একটি সেনা আবাসে বিচ্ছিন্ন সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এর জেরে ‘অভিযানের’ নামে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী নিরস্ত্র রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশুদের ওপর নির্যাতন ও হত্যাযজ্ঞ চালাতে থাকে। ফলে লাখ লাখ মানুষ সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য চলে আসছেন।