আজ  মঙ্গলবার, ১৯ জুন, ২০১৮

শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী আয়েশা বেগম ওরফে ‘বড় আম্মা’ রিমান্ডে

YABA copy

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিিধি: ইয়াবার বিশাল কারবার নিয়ন্ত্রণ করে সাঙ্গপাঙ্গদের মধ্যে ‘বড় আম্মা’ নামে পরিচিতি পাওয়া টেকনাফের আয়েশা বেগমকে (৪২) বৃহস্পতিবার দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট। কদমতলী থানায় দায়ের করা মামলায় আয়েশা এবং তার দুই সহযোগী নূরী আয়েশা ও রিপনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

জিজ্ঞাসাবাদে এরই মধ্যে আয়েশা কক্সবাজার ও ঢাকাকেন্দ্রিক মাদক ব্যবসায়ীদের ব্যাপারে বেশ কিছু তথ্য দিয়েছেন। মোহাম্মদপুরে জেনেভা ক্যাম্পের যেসব গ্রুপ তার কাছ থেকে ইয়াবা নিয়ে বিক্রি করে আসছিল, তাদের নাম-পরিচয় জানিয়েছেন তিনি। জেনেভা ক্যাম্পের বাচ্চু, সাকিল ও পচিশের ব্যাপারে তার কাছে তথ্য পাওয়া গেছে। এমনকি খুচরা মাদক ব্যবসায়ীদের একটি তালিকাও কথিত এই বড় আম্মার কাছে পাওয়া গেছে।

কাউন্টার টেররিজম বিভাগের এডিসি রহমত উল্লাহ চৌধুরী  বলেন, ‘বড় আম্মা’র চক্রের আরও কয়েকজনের ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া গেছে। তাদের শিগগিরই গ্রেপ্তার করা হবে।

এর আগে গত রোববার বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় আসেন ‘বড় আম্মা’। কাশিমপুর ও কেরানীগঞ্জ কারাগারে গিয়ে স্বজন হিসেবে তার সাঙ্গপাঙ্গদের সঙ্গে দেখা করেন। তার দলের যারা এরই মধ্যে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছে তাদের আর্থিক সহায়তা ও কেনাকাটা করে দিয়ে আসেন তিনি। কারাবন্দি ইয়াবা ব্যবসায়ীদের দ্রুত জামিন করিয়ে কারাগার থেকে বের করে আনার আশ্বাস দেন ‘বড় আম্মা’। কক্সবাজার থেকে ঢাকায় এসে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সাহায্য করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত গত বুধবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন ‘বড় আম্মা’।

পুলিশ বলছে, ২০১১ সাল থেকে টেকনাফ ও কক্সবাজারে বসে রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় প্রতি মাসে লাখ লাখ ইয়াবা বড়ি পাঠিয়ে আসছিলেন তিনি।