আজ  শুক্রবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৮

৫ লাখ রোহিঙ্গার খাদ্য সহায়তা দেবে ডব্লিউএফপি

2

জাকির হোসেন বাদশা : শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট ডেভিড বিসলের সঙ্গে বৈঠকের পর এ আশ্বাসের কথা জানান মন্ত্রী। মিয়ানমার থেকে আসা পাঁচ লাখ রোহিঙ্গা নাগরিককে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) আওতায় যতো দিন প্রয়োজন ততোদিন খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

এছাড়া গর্ভবতী রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের জন্য বিশেষ ধরণের পুষ্টিকর খাদ্য কর্মসূচি, রোহিঙ্গা শিশুদের শিক্ষার বিষয়ে ইউনিসেফের সঙ্গে কাজ করবে ডব্লিউএফপি।

মিয়ানমারের নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নিতে আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রাখতে সক্রিয়ভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে তারা।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শাহ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. রিয়াজ আহমেদ এবং ডব্লিউএফপি’র কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী এবং ডব্লিউএফপির প্রেসিডেন্ট মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নাগরিকদের বর্তমান পরিস্থিতি, খাদ্য সহায়তা, শিক্ষা, চিকিৎসা ইত্যাদি নিয়ে মতবিনিময় করেন।

কঠিন পরিস্থিতে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশের সরকার খুব ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে উল্লেখ করে ডব্লিউএফপির প্রেসিডেন্ট বলেন, সংস্থাটি এ বিষয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকবে। পাঁচ লাখ রোহিঙ্গার খাওয়ার ব্যবস্থা ছাড়াও গর্ভবতী নারী ও শিশুদের পুষ্টিকর খাবারের বিশেষ ব্যবস্থা করা হবে।

তাৎক্ষণিক মধ্য এবং দীর্ঘ মেয়াদে সরকার পরিকল্পনা নিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, তারা বলেছেন যতোদিন নিজ দেশে ফিরিয়ে না যাবে ততোদিন খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রাখবে ডব্লিউএফপি। দুই হাজার একর জায়গায় বর্তমানের ক্যাম্পে খাদ্য সহায়তা অস্থায়ী, দীর্ঘ মেয়াদে হলে ভাষানচরে স্থানান্তর করা হবে।

মিয়ানমার যাতে তার নাগরিকদের দ্রুত তাদের দেশে ফেরত নেয় এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সে ব্যাপারে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সঙ্গে আলোচনা করে চেষ্টা চালানো হবে বলেও উল্লেখ করেন ডেভিড বিসলে। এজন্য বিভিন্ন দেশের সঙ্গেও কথা বলছে সংস্থাটি।

এসময় তিনি উল্লেখ করেন, দুর্যোগে মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেওয়ার জন্য কাজ শুরু করা হলেও ডব্লিউএফপির ৮০ শতাংশ ব্যয়ই হচ্ছে মানব সৃষ্ট সংঘাতের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে সহায়তার জন্য।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বাংলাদেশ সরকার একান্ত মানবিক