আজ  বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরের প্রতারণার শিকার অসহায় পরিবার, সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা, আদালতে মামলা

চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নে অসহায় পরিবারের কাছ থেকে প্রতারণা করে জায়গা বিক্রির নামে দুইবার টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।
ওই সম্পত্তি ক্রয় সূত্রে মালিক হয়ে নুরুল ইসলাম ঢালী ৩০ বছর পর্যন্ত ভোগ দখল করার পর পুনরায় একই জায়গা চাপ প্রয়োগ করে দুইবার টাকা নিয়ে রেজিস্ট্রি করে দেওয়া হয়।
অসহায় নুরুল ইসলাম ডালির ক্রয় কৃত জায়গার মধ্যে তিন করা সম্পত্তি জোরপূর্বক ভাবে তার ছোট ভাই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাস খোরশের ঢালী জবর দখল করার চেষ্টা চালায়।
এই ঘটনায় মমতাজ বেগম বাদী হয়ে চাঁদপুর আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।
শনিবার দুপুরে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে চান্দ্রা উনিয়নের দক্ষিণ বালিয়া ৮ নং ওয়ার্ড ঢালী বাড়িতে গিয়ে প্রতিপক্ষ খোরশেদ ডালিকে সতর্ক করে আসেন।
আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোন অবস্থাতেই বিতর্কিত সম্পত্তির উপর স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।
সম্পত্তির মালিক নুরুল ইসলাম জানান, ৩০ বছর পূর্বে ৯ করা সম্পত্তি এলাকার গনি মোল্লা গংদের কাছ থেকে ক্রয় করা হয়। টাকা নেওয়ার কিছুদিন পরেই তারা রেজিস্ট্রি না করে দিয়ে বিদেশে চলে যান। বিদেশ থেকে বহু বছর পর এসে ওই সম্পত্তি রেজিস্ট্রি করে দেওয়ার জন্য পুনরায় এক লক্ষ টাকা দাবি করেন।
এই ঘটনায় স্থানীয় ভাবে সালিশী বৈঠক শেষে ৫০ হাজার টাকাসহ রাফা দাফা হওয়ার পর টাকা দিতে কিছুটা বিলম্ব হলে সেই সুযোগে ছোট ভাই খোরশেদ আলম তাদের সাথে সমন্বয় করে ১৩ হাজার টাকা দিয়ে তিন করা সম্পত্তি লিখে নেয়।
পরে এই ঘটনা জানতে পেরে সম্পত্তির মালিক গনি মোল্লাকে পুনরায় তার দাবীকৃত টাকা দিয়ে অবশেষে সেই জায়গা রেজিস্ট্রি করে নেওয়া হয়।
এই ক্রয় কৃত সম্পত্তি ৩০ বছর ভোগ দখলে থেকে অনেক গাছ গাছালি রোপন করা হয়েছে।
কিছুদিন পূর্বে ছোট ভাই খোরশেদ লোকজন নিয়ে এসে জোরপূর্বক ভাবে ৮ টি মহা মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে বিক্রি করে ফেলে।
সেই জায়গা তারা জোরপূর্বক ভাবে দখল করার চেষ্টা করলে অবশেষে আদালতের শরণাপন্ন হয়ে নিষেধাজ্ঞা মামলা দায়ের করা হয়।
আদালতে মামলা করা হয় প্রতিপক্ষ খোরশেদ ঢালী আমাদের জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। সম্পত্তি নিয়ে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এই ঘটনাটি সুষ্ঠু সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

শাহরিয়ার খান কৌশিক, মো,০১৭১৩৬৮৮৯২০