আজ  রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে অবৈধ গ্যাস পাম্প বসিয়ে রমরমা বাণিজ্য, সরকারের কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি ফাঁকি

চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর ও দক্ষিণ উপজেলা এবং কচুয়া উপজেলায় অবৈধ ভ্রাম্যমাণ গ্যাস পাম্প বসিয়ে রমরমা বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে।
এলাকার কিছু প্রভাবশালী লোক এমপি ও প্রশাসনের নাম ভাঙ্গিয়ে অবৈধভাবে অনুমোদনহীন ভ্রাম্যমাণ সিএনজি পাম্প দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসা করে আসছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
চাঁদপুর মতলব উত্তর সেতুর টোল প্লাজার সামনে প্রকাশ্যে এই ভ্রাম্যমান সিএনজি গ্যাস পাম্প বসিয়ে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।
সম্পূর্ণরূপে অনুমোদনহীন ও   বেআইনিভাবে এই গ্যাস পাম্প বসিয়ে তারা সরকারের কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সিএনজি, প্রাইভেটকার ও অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস বিক্রি করছে।
এছাড়া চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ নারায়ণপুর বাজার সংলগ্ন এলাকায় রাস্তার পাশে আরেকটি অবৈধ গ্যাস পাম্প দিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছে।
মতলব উত্তর-দক্ষিণ ছাড়া কচুয়া উপজেলায় বাজার সংলগ্ন এলাকায় মহাসড়কের পাশে আরেকটি অবৈধ গ্যাস পাম্প রয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এসকল অবৈধ গ্যাস পাম্পের ব্যবসায়ীরা স্থানীয় এলাকার প্রভাব খাটিয়ে সরকারকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে তাদের ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে। এসকল অসাধু ব্যবসায়ীরা ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে কাবার ব্যান্ড ট্রাকের ভিতরে গ্যাস সিলিন্ডারের বোতল ঢুকিয়ে সেগুলো সরকারি গ্যাস পাইপ থেকে চুরি করে মেশিনের মাধ্যমে সিলেন্ডার বোতল লোড করে বোঝাই করে নিয়ে আসে। সেই ট্রাকের ভিতর থেকে গ্যাসের সিলিন্ডারের সাথে পাইপ সংযোগ করে উল্লেখিত জায়গায় একটি মেশিনের সাথে সংযোগ দেয়।
সেখান থেকে পর্যায়ক্রমে সিএনজি স্কুটার প্রাইভেটকার ও অন্যান্য যানবাহনে গ্যাস সরবরাহ করে।
চাঁদপুরে যেসকল গ্যাস পাম্পে রয়েছে সেখানে প্রতি লিটার গ্যাস ৪১ টাকা করে বিক্রি করা হয়।
কিন্তু চাঁদপুর থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে মতলব উত্তর দক্ষিণ ও কচুয়ায় কোনো সরকারি অনুমোদিত কোন গ্যাস পাম্প না থাকায় সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরা ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে তারা অবৈধভাবে গ্যাস পাম্প বসিয়ে প্রতি লিটার গ্যাস ৬০ টাকায় বিক্রি করে রমরমা ব্যবসা করে যাচ্ছে।
এতে করে সরকার প্রতি মাসে কয়েক কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে ও যারা অনুমোদন নিয়ে গ্যাস পাম্প দিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছে তাদের ব্যবসা চরমভাবে ক্ষতির সম্মুখীন পরেছে।
মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুর প্যানেল চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সেলিমের কার্যালয় সামনে আশ্বিনপুর পাটোয়ারি বাড়ি শ্যামল পাটোয়ারী ও জীসান সহ ৪ জন এমপির আত্মীয় পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে গ্যাস পাম্প বসিয়ে গ্যাস সরবরাহ করছে।
এছাড়া মতলব উত্তর উপজেলার সেতুর টোল প্লাজার সামনে প্রকাশ্যে অবৈধ ভাবে বাইশপুর গ্রামের বাদল ও গজরা গ্রামের দিপন ১ টি ভ্রাম্যমাণ গ্যাস পাম্প দিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।
এই বিষয়ে মতলব উত্তরের বাদল ও দক্ষিণ নারায়ণপুরের শ্যামল পাটোয়ারী জানায়, এমপির অনুমতি নিয়ে ও স্থানীয় থানার ওসি এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করে এই গ্যাস পাম্প দিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছি। তবে সরকারিভাবে কোন অনুমতি না থাকলেও সকলের সাথে সমন্বয় করে এই গ্যাস পাম্প দেওয়া হয়েছে। যদি কিছু বলার থাকে তাহলে এমপি সাহেবের সাথে যোগাযোগ করলেই ভালো হবে।
এদিকে প্রশাসনের নাকের ডগায় অবৈধভাবে রাস্তার পাশে এই গ্যাস পাম্প দিয়ে রমরমা বাণিজ্য চালিয়ে যাওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।
সরকারি নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে ও অনুমোদন বিহীন গ্যাস পাম্প বসিয়ে গ্যাস সরবরাহ করার কারণে যে কোন সময় এলাকায় বড় ধরনের বিস্ফোরণ ঘটনা সম্ভাবনা রয়েছে বলে স্থানীয় এলাকাবাসী মনে করছেন।
খুব দ্রুত চাঁদপুর জেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন এই সকল অবৈধ গ্যাস পাম্প এর বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জোর দাবি জানিয়েছেন সচেতন মহল।

শাহরিয়ার খান কৌশিক, মো,০১৭১৩৬৮৮৯২০