আজ  শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে ইব্রাহিমপুরে বিআইডব্লিউটির ড্রেজিং এর বালু ফেলায় নদীর পাড় ভাঙ্গন

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১১ নং ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের আলু বাজারে বিআইডব্লিউটি নদী ড্রেজিং করে অপরিকল্পিতভাবে বালু ফেলার কারণে নদীর পাড় ভেঙে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
চাঁদপুর আলু বাজার ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে নদী চ্যানেল গভীরতা করার জন্য বিআইডব্লিউটির নিজস্ব ড্রেজার দিয়ে ড্রেজিং কাজ করা হচ্ছে।
নদী ড্রেজিং করে বালু ভাঙ্গন স্থানে না ফেলে ইউপি চেয়ারম্যান কাশেম খানের নির্দেশে আলু বাজার এলাকার মায়ের দোয়া নামে ইটভাটার পাশে সেই বালু ফেলানো হচ্ছে।
ড্রেজিং এর বালু ফেলানোর সময় প্রচন্ড পানির প্রেসার এসে নদীর তীর ভেঙ্গে গভীরতা হয়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
এতে করে গাড়ি রাখার বিআইডব্লিউটি টার্মিনাল ভেঙ্গে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।
অপরিকল্পিতভাবে নদীর বালু ড্রেজিং করে ফেলায় তীর ভেঙে যাওয়ায় স্থানীয় এলাকাবাসী কাজে বাধা দেয় এবং প্রতিবাদ জানাই।
স্থানীয় এলাকাবাসী বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানালে বিআইডব্লিউটির ড্রেজার বন্ধ রাখা হয়েছে।
ওয়ার্ড মেম্বার ও স্থানীয় এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, আলু বাজার এলাকায় নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে নৌ চ্যানেল ড্রেজিং করে সেই বালু ভাঙ্গন স্থানে ফেলানোর কথা ছিল। কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান কাশেম খান এর নির্দেশে বিআইডব্লিউটির ইঞ্জিনিয়ার সেই বালু ইটভাটার পাশে ফেলেছে। নদীর ড্রেজিং এর বালু উপরে উঠিয়ে রেখে সেই বালু আবার সেখান থেকে ট্রাক দিয়ে বিক্রি করাই  ছিল মূল উদ্দেশ্য।
এই বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান কাশেম খান জানান, বিআইডব্লিউটি নদীতে ড্রেজিং করে বালু কোথায় ফেলবে সেটা তাদের বিষয়। তবে মায়ের দোয়া ইট ভাটার পাশে মাটি কাটার কারণে গভীরতা হওয়ায় সেখানে বালু ফেলানোর জন্য বলা হয়। পানির প্রেসারে তীর ভেঙে যাওয়ায় সেই জায়গা মেরামত করা হবে’।

বিআইডব্লিউটির ইঞ্জিনিয়ার শরিফ জানান, ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে আলু বাজার এলাকায় নৌ চ্যানেল ড্রেজিং করা হচ্ছে। ড্রেজিংয়ের বালু ভাঙ্গন এলাকায় ফালানোর কথা থাকলেও ইউপি চেয়ারম্যান কাশেম খানের অনুরোধে ইটভাটার পাশে ফেলানো হয়েছে। পানির প্রেসার সইতে না পেরে নদীর তীরবর্তী এলাকা ভেঙে যাচ্ছে। আমরা ড্রেজিং পাইপ সরানোর চেষ্টা করলেও কাসেম চেয়ারম্যান কাজে বাধা দেয়। এই কারণে ড্রেজিং বর্তমানে বন্ধ রয়েছে সমস্যা সমাধান হলে ড্রেজিং কাজ চলবে।

শাহরিয়ার খান কৌশিক,মো,০১৭১৩৬৮৮৯২০