আজ  মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে কলেজ ছাত্রীকে অপহরনের চেষ্টা, থানা প্রাঙ্গণ থেকে আসামি পলায়ন

চাঁদপুর মহিলা কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী অপহরণ করার চেষ্টার সময় মূল হোতা মামুনকে আটক হয়।
আসামিকে থানা প্রাঙ্গণে নেওয়ার পরেই পুলিশের হাত থেকে ছুটে গিয়ে পলায়ন হয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় চাঁদপুর মডেল থানায় ভিতর থেকে পালায়ন হওয়ার ঘটনাটি ঘটে।
কলেজ ছাত্রীকে বেশ কিছুদিন ধরে আসা-যাওয়ার পথে উত্তপ্ত করার ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা জিয়া বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে।
বৃহস্পতিবার কলেজছাত্রী তার অসুস্থ স্বজনকে সরকারি জেনারেল হাসপাতালে দেখতে আসলে খবর পেয়ে লম্পট বখাটে মামুন কলেজ ছাত্রীকে হাত ধরে টেনে নেওয়ার চেষ্টা করে।
এসময় তার পরিবারের লোকজন এসে কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করে এবং পুলিশকে খবর দেয়।
খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার এসআই লোকমান হাসপাতালে গিয়ে মামুনকে আটক করে থানায় প্রাঙ্গণে নিয়ে আসে।এ
সময় মামুনকে হ্যান্ডকাপ না পড়ানোর কারণে সে পুলিশের হাত থেকে ছুটে গিয়ে পৌরসভার পিছন দিয়ে পালিয়ে যায়।
আসামীকে ধরার জন্য পিছনে দৌড়ে গিয়ে তাকে ধরা সম্ভব হয়নি।
পলাতক আসামি মামুন চাঁদপুর শহরের রহমতপুর কলোনির ভাড়াটিয়া বাসিন্দা।
এই ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা জিয়া জানায়, দীর্ঘদিন যাবত বখাটে মামুন মেয়েকে উত্যক্ত করে আসছিল। থানায় অভিযোগ করার পরে তাকে ডেকে এনে মুসলিম রেছে ছেড়ে দেওয়ার পরে ঘটনার দিন দুপুরে মেয়েকে হাসপাতালের সামনে থেকে অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।
এ ঘটনায় মডেল থানার এসআই লোকমান, হাসপাতালে ভিতরে মেয়ে ছেলের সাথে ধ্বস্তাধ্বস্তির ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা ছেলেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসলে সে ভেতর থেকে দৌড় দিয়ে পালিয়ে যায়। মেয়ের বাবা ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।