আজ  শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে দেহ ব্যবসা প্রকাশিত সংবাদে ইউপি মেম্বার হাকিমের বিবৃতি

 

চাঁদপুর পৌরসভার বাবুরহাট ১৪ নং ওয়ার্ড শিলন্দীয়া গ্রামে দেহ ব্যবসার ঘটনায় প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ ও বিবৃতি দিয়েছেন মৈশাদী ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড মেম্বার হাকিম গাজী।
তিনি তার বিবৃতিতে উল্লেখ করেন,
বাবুরহাট শিলন্দীয়া গ্রামে মৃত হারুনুর রশিদ খানের বাউন্ডারি সীমানার পাশে পতিতার সরদার কাশেম মিজী টিনের ঘর ভাড়া নিয়ে পতিতা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে তা বেশ কয়েকবার উচ্ছেদের জন্য চেষ্টা করেছি। বাড়ির মালিকে এই ঘটনা জানানো হয়েছে এবং কাসেম মিজি ও তার পরিবারকে এই এলাকা থেকে চলে যাওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
লম্পট কাসেম মিজী বিপদগ্রস্ত হলে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা ও মেম্বারদের নাম ভাঙ্গিয়ে নিজের সুবিধা ভোগ করেন। তার এই অপকর্মের সাথে আমি জড়িত নই তবে তার বাড়ির কাছে বসবাস করার কারণে যেকোনো ধরনের ঘটনা ঘটলে সেখানে একজন ইউপি মেম্বার হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করতে হয়। ইউপি মেম্বার হিসেবে অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সহিত দায়িত্ব পালন করে মানুষের সেবা করেছি। আমার জনপ্রিয়তা ঈর্ষান্বিত হয়ে
আমার প্রতিপক্ষ ও মেম্বার হিসেবে আগামীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা যারা করবে একমাত্র তারাই আমার মান সম্মান ক্ষুন্ন করার লক্ষ্যে সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে আমাকে জড়িয়ে এই সংবাদটি প্রকাশ করেছে।আমি এই সংবাদের একাংশের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। মৈশাদী ইউনিয়নে মাদক ইভটিজিং ও সকল অপকর্মের বিরুদ্ধে ছিল আমার কঠোর অবস্থান। এই এলাকার যুবসমাজ রক্ষা করতে দুই-একদিনের মধ্যেই পতিতার সরদার কাসেম মিজি ও তার পরিবারকে এলাকা থেকে উচ্ছেদ করা হবে। অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের কারণে যারা আমার বিরুদ্ধে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে তাদের প্রতি অনুরোধ করছি আমি এই সকল অপকর্মের সাথে জড়িত নই যারা জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে আমি সর্বদা কঠোর অবস্থান থাকবো।