আজ  শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

চাঁদপুরে শিশুকে চুরি করতে গিয়ে দেবর আটক

 

চাঁদপুরে মুছা নামে ৩ বছরের শিশুকে চুরি করতে গিয়ে দেবর ইয়াছিন মোল্লা(২৮)কে আটক করেছে স্থানীয় জনতা।
বুধবার বিকেলে চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নের পূর্ব মদনা রাড়িগো পুল এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, পূর্ব মদনা গ্রামের কুদ্দুস আলীর মেয়ে খালেদা আক্তারের সাথে তিন বছর পূর্বে বাখরপুর ২ নং ওয়ার্ডের মৃত হোসাইন মোল্লার বড় ছেলে সোলেমান মোল্লার সাথে বিয়ে হয়।
বিয়ের পরেই সোলেমান মোল্লা যৌতুকের দাবিতে তার স্ত্রী খালেদা আক্তারকে বেদম মারধর করতো। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিসি হওয়ার পরেও তারা নির্যাতন দিন দিন বেড়েই চলে, পরে খালেদা আক্তারকে তার শ্বশুর বাড়ি থেকে বের করে দেয়।
নির্যাতনের শিকার খালেদা আক্তার তার একটি মাত্র শিশু সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসে।
তিন বছর যাবত খালেদা শিশু সন্তানকে নিয়ে তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করে।
তার তার স্বামী কোন ধরনের খোঁজ খবর না নিয়ে শিশু সন্তানকে তার কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার চেষ্টা করে।
স্বামী সোলেমান মোল্লা অবশেষে তার ছোটভাই ইয়াসিন মোল্লাকে বুধবার দুপুরে খালেদা আক্তারের বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে শিশু সন্তানকে ছিনিয়ে আনার জন্য পরিকল্পনা করে।
দেবর ইয়াসিন মোল্লা খালেদা আক্তার এর বাবার বাড়িতে গিয়ে ঘরে কাউকে না দেখে সুযোগ বুঝে শিশু সন্তান মুছাকে চকলেট খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে রাস্তায় নিয়ে এসে সিএনজিতে উঠায়। এসময় তার নানী সুফিয়া বেগম প্রথমে দূর থেকে দেখে চিৎকার দিয়ে শুরু করে।
পরে স্থানীয় এলাকার প্রতিবেশী রাকিব ডালি পুকুর হিচার সময় দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার দিয়ে সিএনজি ধাওয়া করলে স্থানীয় লোকজন দেবর ইয়াসিন মোল্লাকে আটক করে।
এলাকাবাসী ইয়াসিন মোল্লাকে আটক করে খালেদা আক্তারের বাড়িতে নিয়ে যায় এবং তার স্বামীকে আসার জন্য বলেন।
কিন্তু এই ঘটনায় ইয়াসিন মোল্লা পরিবার কেউই সমঝোতা করতে না আসায় ইউপি চেয়ারম্যান খানজাহান আলী পাটোয়ারী বিষয়টি চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশকে অবহিত করেন।
খবর পেয়ে মডেল থানার এসআই আনোয়ার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শেষে ইয়াসিন মোল্লাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
এই ঘটনায় ইয়াসিন মোল্লার বিরুদ্ধে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়।