আজ  শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

চাঁদপুর আখনঘাটে শহিদ সরর্দারের নেতৃত্বে ইলিশ নিধন ও বিক্রি

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৩ নং হানারচর ইউনিয়নের আখনঘাটে ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ সরর্দারের নেতৃত্বে নদীতে শতাধিক জেলে নৌকা মা ইলিশ নিধন করছে ও তার আড়ৎদে সেই মাছ বিক্রি করছে।
ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শহিদ সরর্দার এই ২২ দিনের অভিযানে সরকারি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে মা ইলিশ বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর ইউনিয়নের প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে ভোর পর্যন্ত আখনঘাটে নদীর পাড়ে খুচরা ও পাইকারী ইলিশ মাছ বিক্রি করা হচ্ছে।আর এই মাছ বিক্রির কমিশন আওয়ামী লীগ নেতা শহীদ সরদার নিজেই নিচ্ছে।
বুধবার রাত ১২টায় আখনঘাটে নদীর পাড়ে গিয়ে দেখা যায় শহীদ সরদার নদীর পাড়ে বসে মাছ ক্রয় বিক্রয় করছে। সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে তড়িঘড়ি করে জেলে নৌকা বিদায় করে দিয়ে নিজে সাধু সন্ন্যাসী হয়ে জেলেদের বিরুদ্ধে কথা বলতে শুরু করে। এসময় শহীদ সরদার জানান, আখনঘাটে মাছ বিক্রি কম হয় দাম অনেক বেশি। ফরিদগঞ্জ থানার একজন পুলিশ কর্মকর্তা কে দুই হালি মাছ ৩৬০০ টাকা দিয়ে কিনে দিয়েছে। সেই মাছ রিক্সা সিটের নিচে ঢুকিয়ে আইলার রাস্তা পর্যন্ত এগিয়ে দিয়েছি। মানুষ মাছের জন্য আমাদের কাছে এসে ফোন দেয় তাই একটু সহযোগিতা তাদের করতে হয়। নদীতে জেলেদের লক্ষ লক্ষ টাকা দাদন দিয়েছি তার পরেও তারা মাছ দিচ্ছেনা, জেলেরা নিজেরাই তা বিক্রি করেন।

স্থানীয়রা জানান,হানারচর ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ সরদার ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে দীর্ঘ বছর যাবত এই এলাকায় মাছের ব্যবসা করে আসছে। অভিযানের সময় আসলে ইলিশ মাছ বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা অবৈধভাবে হাতিয়ে নিচ্ছে। তার বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে নদীতে ইলিশ মাছ নিধন বন্ধ করা সম্ভব হবে সরকারের উদ্দেশ্য সফল হবে ।