আজ  বুধবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২০

চাঁদপুর চান্দ্রায় ৫০ বছরের পুরনো রাস্তা পাকা করনের দাবিতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালিয়া চেয়ারম্যান রোড নামে পরিচিত ৫০ বছরের পুরনো রাস্তাটি পাকাকরনের দাবিতে এলাকাবাসী বিক্ষোভ করেন।
সোমবার বিকেলে ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডে মধ্যকার প্রায় দুই কিলোমিটার অবহেলিত রাস্তাটি পাকা করনের দাবিতে শতাধিক মানুষ এই বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করেন।
এলাকার মানুষের প্রাণের দাবি খুব দ্রুত এ কাঁচা রাস্তাটি যেন নতুন করে পাকা করণের কাজ শুরু করেন। এতে করে এলাকার মানুষ চরম দুর্ভোগ থেকে রেহাই পাবেন।
চান্দ্রা ইউনিয়নের  দক্ষিণ বালিয়া গ্রামে প্রায় ১০ হাজার মানুষ এই রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করেন। কিন্তু বর্ষা মৌসুমে এ রাস্তাটি  বেহাল দশায় পরিণত হয়।
ইউনিয়নের দুটি ওয়ার্ডের জনগণ এই কাঁচা রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। রাস্তাটির বিভিন্ন জায়গায় ভেঙ্গে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে এলাকার মানুষ যানবাহনে মালামাল নিয়ে এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে পারছে না। এলাকার শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী পড়ালেখার জন্য মাদ্রাসা ও স্কুলে বর্ষার মৌসুমে খুব কষ্টে যেতে হয়।
এই চান্দ্রা ইউনিয়নের সাবেক সফল চেয়ারম্যান আবুল খায়ের এলাকার মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন তাই দক্ষিণ বালিয়া রাস্তাটি চেয়ারম্যান হিসেবে নামকরণ করা হয়। কিন্তু এই সাবেক চেয়ারম্যান আবুল খায়ের মারা যাওয়ার পর এলাকার মানুষ খুবই অবহেলিত ও এখানে উন্নয়নের ছোঁয়া এখানে পড়েনি। আবুল খায়ের চেয়ারম্যান এর ছেলে ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক সালাউদ্দিন মোহাম্মদ বাবু ও ইউনিয়ন  যুবলীগের সদস্য জহির মিজি বাড়ি এলাকায় হওয়ায় রাস্তাটি সংস্কার ও পাকা করনের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান খানজাহান আলী কালু পাটোয়ারী আছে অনুরোধ করেন।
অবশেষে শিক্ষা মন্ত্রী আলহাজ্ব দীপু মনি হস্তক্ষেপে ডিউ লেটার এর মাধ্যমে এই রাস্তাটি পাকা করনের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হয়। টেন্ডার প্রক্রিয়ার এলজিডির মাধ্যমে দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকা করনের কাজ শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী।
এদিকে এলাকার বিক্ষুব্ধ জনতার মধ্যে মুক্তার তপাদার, আনাস উল্লাহ পাটোয়ারী, শাহজাহান সরদার, সুরুজ সরদার, করিম খান, সুফি বেগম অভিযোগ করে বলেন, দক্ষিণ বালিয়া গ্রামের ওয়াপদা রাস্তা থেকে শুরু করে লাতু হালদারের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তাটি চেয়ারম্যান রোড হিসেবে পরিচিত। ৫০ বছরের পুরনো কাঁচা রাস্তাটি পাকা করার জন্য বেশ কয়েকবার ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারীর করে দিবে বলে ওয়াদা করলেও তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেনি।
ইউনিয়নের অন্যান্য রাস্তাগুলো কাজ করলেও ১৫  বছর দায়িত্বে থাকাকালীন সময় চেয়ারম্যান এ রাস্তাটি পাকা করনের জন্য উপজেলায় প্রস্তাব পাঠায় নি।
বর্ষার মৌসুমে এ রাস্তায় পানি দিয়ে মানুষ চলাচল করে। অল্প বৃষ্টি হলেই এ রাস্তাটি দিয়ে লোধ প্যাড হওয়ায় হাঁটা যায় না।
এলাকার মানুষ চরম দূর্ভোগে পড়েছে আমাদের একটাই দাবি অতি দ্রুত এ রাস্তার কাজটা যেন সম্পন্ন হয়।
এই বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান খানজাহান আলী কালু পাটোয়ারী জানান, এই ইউনিয়নে ১৩টি কাঁচা রাস্তা পাকা করা হয়েছে, স্কুল মাদ্রাসার ভবন করা হয়েছে। ব্যাপক উন্নয়ন মূলক কাজ করা হয়েছে। চাঁদপুর ৩ আসনের এমপি শিক্ষা মন্ত্রী আলহাজ্ব ডা, দীপু মনি আপা ডিউ লেটার দিয়ে এই চেয়ারম্যান রোড নামে পরিচিত রাস্তাটি পাকা করনের জন্য সকল কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এখন টেন্ডার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ঠিকাদার নিয়োগের পর কাজ শুরু করা হবে।

শাহরিয়ার খান কৌশিক, মো,০১৭১৩৬৮৮৯২০