আজ  রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

চাঁদপুর দি ইউনাইটেডে নবজাতক রেখে মা উধাও,সমাজসেবা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর

 

চাঁদপুরে দি ইউনাইটেড হাসপাতালে নবজাতককে ফেলে রেখে মা উধাও হওয়ার পর ফেলে যাওয়া শিশুটিকে সমাজসেবা অধিদপ্তরের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের প্রবেশন অফিসার মনিরুল ইসলামের মাধ্যমে শিশুটিকে তার পালিত মায়ের কাছে রাখা হলেও আদালতের নির্দেশে পরবর্তীতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
চাঁদপুর শহরের কুমিল্লা রোডস্থ তালতলা দি ইউনাইটেড হাসপাতালে ফেলে যাওয়া শিশুটিকে নিয়ে পক্ষ বিপক্ষের মধ্যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়ে আসছিল।
‌ নবজাতক শিশুর মা বাচ্চা প্রসব হওয়ার পর রাতে ঔষধ আনার নামে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়।
হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ ফেলে যাওয়া শিশুটি আয়া সখিনার মাধ্যমে ২২ দিন সেবা-যত্ন করার পর জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে হস্তান্তর করেন।
হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস,এম শাহ আলম রবিন জানায়,দি ইউনাইটেড হাসপাতাল ২০১১ সালে যাত্রা শুরু করার পর অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সহিত রোগীদের সেবা দিয়ে আসছে।প্রতিদিন ইনডোর ও আউটডোরে প্রায় শতাধিক রোগী হাসপাতালে দক্ষ ডাক্তার দ্বারা চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।
হাসপাতালে মোট ৫ জন ডাক্তার ও ৯ জন নার্স রয়েছে তারা রোগীদের সেবা দিচ্ছে।
অনেক জটিল রোগের চিকিৎসায় হাসপাতালে হয়ে থাকে।
কিছুদিন পূর্বে একটি নবজাতক শিশুকে দেখে তার মা ঔষধ আর নাম করে পালিয়ে যায়।পরে থানায় সাধারণ ডায়েরি করার পর জেলা সমাজ সেবার মাধ্যমে শিশুটিকে হস্তান্তর করা হয়।
হাসপাতালের আশেপাশে কিছু লোক ব্যক্তিস্বার্থে ঈর্ষান্বিত হয়ে হাসপাতালে সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য বিভিন্ন অপপ্রচার চালায়। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই।
হাসপাতালে আয়া সুফিনা বেগম জানায়, শিশুটিকে ফেলে যাওয়ার পর ২২দিন হাসপাতালে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সেবা দিয়ে সুস্থ করেছি। পরে সরকারিভাবে শিশুদের নিয়ে তার পালিত মায়ের কাছে দেওয়া হয়।
জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক রুহুল শুভ সরকার জানায়, দি ইউনাইটেড হাসপাতালে একটি প্রসূতি মা বাচ্চা ফেলে রেখে চলে যায়। সমাজসেবা অধিদপ্তর শিশুটিকে কেয়ার করে শিশু কল্যাণ বোর্ডের মাধ্যমে একজন এক মায়ের কাছে সাময়িকভাবে রেখেছি। পরবর্তীতে শিশু আদালত যে সিদ্ধান্ত দিবে সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সেই মায়ের কাছে হস্তান্তর করবো।

দি ইউনাইটেড হাসপাতালে ডাক্তার ইফতেখারুল আলম জানান, অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সহিত আমরা এ হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছি। হাসপাতালের গাইনি,মেডিসিন, শিশু রোগের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। দীর্ঘদিন যাবৎ এই হাসপাতালের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য কিছু লোক চেষ্টা করে আসছে।

শাহরিয়ার খান কৌশিক,মোঃ,০১৭১৩৬৮৮৯২০