আজ  রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০

চান্দ্রায় সিঁধ কেটে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে বিল্লাল বেপারির বিবৃতি

 

চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় বিবৃতি দিয়েছেন ইউপি মহিলা মেম্বারের স্বামী বিল্লাল হোসেন বেপারি।
সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মোবাইল চুরি ও ধর্ষণের অভিযোগে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তার একাংশের প্রতিবাদে বিবৃতি দিয়ে বিল্লাল বেপারি জানান, গত রবিবার রাতে মিলন তার পাশের ঘরে প্রতিবেশী ৩ মেয়েকে কোকাকোলার ভিতরে নেশাজাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে তাদেরকে অচেতন করে।
রাতে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মোবাইল চুরি করে পালিয়ে যায়। সোমবার দুপুরে অচেতন হওয়া ৩ কিশোরীকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।
সেদিন এক মেয়ের বাবার সাথে হাসপাতালে গিয়ে তাদেরকে দেখতে যাই। চুরি হওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে আমরা চুরি হওয়া মোবাইলটি উদ্ধার করার জন্য চেষ্টা করি। কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ করায় বিষয়টি আমরা তাৎক্ষণিক জানতে না পারার কারণে ভুলবশত স্থানীয়ভাবে শালিশী বৈঠকের কথা হয়েছে। পরক্ষণে ধর্ষণের অভিযোগ জানতে পারায় আইনগতভাবে পুলিশি সহযোগিতা নিয়ে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য মেয়ের মা ও তাদের পরিবারকে বলা হয়।
আমার সাথে অভিযুক্ত মিলনের কোন সম্পর্ক নেই সে কোথায় আছে তাও আমার জানা নেই। কিন্তু একটি কুচক্রী মহল আমাকে কুলষিত করার লক্ষ্যে ও সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য সংবাদকর্মীদের ভুল বুঝিয়ে আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছেন।আমি এই প্রকাশিত সংবাদের একাংশের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।