আজ  রবিবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২০

চান্দ্রায় করোনার উপসর্গ নিয়ে ১ বৃদ্ধের মৃত্যু,বাড়ি লকডাউন, এলাকায় আতঙ্ক

 

চাঁদপুর সদরের চান্দ্রায় করোনার উপসর্গ নিয়ে আরো ১ জন বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।
২৯ শে মে শুক্রবার বিকালে তিনি চাঁদপুর শহরে ফ্যামিলি কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যাওয়ার পর তার করোনা উপসর্গ দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়। পরে রাস্তায় তার করুণ মৃত্যু হওয়ার পর কাউকে বুঝতে না দিয়ে দ্রুত এলাকায় নিয়ে আসে।
নিহতের বাড়ি চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালিয়া ৮ নং ওয়ার্ডে। তার নাম ফয়েজ উল্যাহ। বয়স অনুমান ৭৫ বছর।
করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর খবরটি ১২ নং চান্দ্রা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী চাদঁপুর সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাজেদা পলিনকে জানিয়েছেন।
এছাড়া বিষয়টি প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে।
ফ্যামিলি কেয়ার হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ডাক্তার ইমরান জানায়,করোনা উপসর্গ নিয়ে ফয়েজ উল্যাহ হাসপাতালের আসার পর নিচে গাড়িতে থাকা অবস্থায় তাকে করোনা উপসর্গ রয়েছে দেখে ও শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় চাঁদপুর সরকারি হাসপাতাল কিংবা ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে করার পরামর্শ দেওয়া হয়।করোনা ভাইরাস এর উপসর্গ থাকায় রোগীকে হাসপাতালে পাঠানো হয়নি।এসময় রোগীর স্বজনরা তাকে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে চলে যাওয়ার পথে বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যায়।
এলাকাবাসী জানায়, মৃত ফয়েজ উল্লাহের করোনা উপসর্গ ছিলো। ইউপি চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী ও গ্রাম পুলিশ সহ তাঁর বাড়িটিতে লাল পতাকা লাগিয়ে দিয়ে লকডাউন ঘোষণা করেন। ওই বাড়ির বেশ কয়েকজন এখন জ্বর সর্দি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।করোণা উপসর্গে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি গোপন রেখে মৃতের পরিবার লুকোচুরি করে প্রশাসনকে না জানিয়ে লাশটি দখল করেন। এই ঘটনায় এলাকায় করোনা রোগে অনেক লোক আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই বাড়িটি লকডাউন ঘোষণা করার পরেও মৃতের পরিবার তা মানছেনা ও এদিক-সেদিক আসা-যাওয়া করায় জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।