আজ  বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

১ মে জেলেদের পদ্মা-মেঘনায় ইলিশ মাছ ধরা শুরু, রেকর্ড পরিমাণ জাটকা নিধন

সারাদেশসহ চাঁদপুরে মার্চ-এপ্রিল দু’মাস নিষেধাজ্ঞা শেষে শুক্রবার ১ মে মধ্যরাত থেকে পদ্মা-মেঘনায় মাছ ধরতে শুরু করবে চাঁদপুরের জেলেরা। ৩০ এপ্রিল মধ্য রাত পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা ছিলো। চাঁদপুর নৌ-সীমানায় নদীতে নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে ৩০ এপ্রিল । দীর্ঘ দু’মাস পর শুক্রবার থেকে নদীতে মাছ ধরতে নদীতে নামছে ৫১ হাজার জেলে।
এ কারণে স্বস্তি ফিরে আসছে জেলে পরিবারগুলোতে।
এই বছর রেকর্ড পরিমাণ জাটকা নিধন করেছে জেলেরা পূর্বে কোন বছর  এতো জাটকা নিধন হয়নি। আগামী ৫ বছরেও ইলিশ মাছের ঘাটতি পূরণ হবে না।মহামারী করোনা ভাইরাস এর কারনে নদীতে নৌ পুলিশ ও কোস্টগার্ডের ঢিলেঢালা অভিযানের কারণে এই বছর সবচেয়ে বেশী জাটকা নিধন হয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
কর্তৃপক্ষের দাবি জাটকা রক্ষার কর্মসূচি সফল হওয়ায় এ বছর ইলিশের উৎপাদন বাড়বে বলে দেশের খ্যাতনামা ইলিশ গবেষক ড.আনিছূর রহমান ২৯ এপ্রিল বূহস্পিবার তাঁর দপ্তরে এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে জানান্ । করোনার কারণে জাটকা রক্ষা কর্মসুচি কিছুটা সীমাবদ্ধতায় রয়েছিল। তবুও উৎপাদন ব্যাহত হবে না । দেশে গেলো অর্থবছরে ইলিশ উৎপাদন ছিল ৫ লাখ ৩৩ হাজার মে.টন। যেখানে ২০০২-২০০৩ অর্থবছরে যেখানে ইলিশের উৎপাদন ছিল ১ লাখ ৯৯ হাজার মে.টন । চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে তা বেড়ে ৫ লাখ ৫০ হাজার মে.টনে হওয়ার কথা রয়েছে ।

হাইমচর উপজেলার চর ভৈরবী বেশ কয়েকজন জেলে জানায়, জাটকা রক্ষায় অভয়াশ্রম চলাকালীন সময় আইন মেনে এই এলাকায় জেলেরা নদীতে মাছ ধরতে নামেনি। কিন্তু বহিরাগত থেকে প্রায় হাজার হাজার জেলে এখানে এসে প্রতিদিন মনকে মণ জাটকা নিধন করেছে। কোস্টগার্ড কোন পুলিশের চোখের সামনে দিয়ে তারা জাটকা নিধন করেছে। এ বছর রেকর্ড পরিমাণ জাটকা নিধন ও ক্রয়-বিক্রয় হয়েছে।  নৌ পুলিশ টাকা নিয়ে জেলেদের নদীতে মাছ ধরতে সহযোগিতা করেছে। তাই প্রশাসনের প্রতি কোন আমাদের ভরসা নেই ।
চাঁদপুর মৎস্যজীবী লীগের সাধারণ সম্পাদক মানিক দেওয়ান জানান, এ বছর যে পরিমাণ মাছ উৎপাদন হয়েছিল প্রতি রাতে হাইমচর উপজেলা থেকে একশ থেকে দেড়শ টন জাটকা নিধন করেছে জেলেরা। যদি এই জাটকা মাছটা দুই মাস সময় পেত তাহলে হাজার হাজার কোটি টাকা ইলিশ মাছ বিক্রি করা সম্ভব হতো। এ মাছ বাঁচলে বাংলাদেশ চালাতে মাছ বিক্রির টাকা দিয়ে সম্ভব ছিল। যাদের দিয়ে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে তারা জেলেদের টাকার কাছে জিম্মি। আমরা কোনভাবেই অভিযান সফল হতে পারেনি, সরিষার মধ্যে ভূত রয়েছে। যদি নৌবাহিনীর জাহাজ নদীর মাঝখানে থেকে অভিযান পরিচালনা করতো তাহলে জাটকা বাঁচানো সম্ভব হতো।
প্রসঙ্গত, জাতীয় মাছ ইলিশ রক্ষায় সরকার প্রতি বছরের অক্টোবর মাসে মা ইলিশ রক্ষায় ২২ দিন ও জাটকা ইলিশ রক্ষায় মার্চ-এপ্রিল দু’ মাস নদীতে মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আসছে। নিষেধাজ্ঞা চলাকালে মেঘনা নদীর মতলব উত্তরের ষাটনল থেকে লক্ষ্মীপুরের চরআলেকজেন্ডার পর্যন্ত ১ শ’ কি.মি এবং পদ্মার ২০ কি.মি. এলাকায় সকল প্রকার মাছ ধরা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয় ।
শুক্রবার মধ্যরাত থেকে নদীতে মাছ ধরতে পারবে ।

শাহরিয়ার খান কৌশিক,মোঃ,০১৭১৩৬৮৮৯২০