আজ  শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

৯৯৯ ফোন করে পুলিশি সহায়তা চাঁদপুরের আশিকাটিতে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত-৩

 

চাঁদপুর সদর উপজেলার ২নং আশিকাটি ইউনিয়নের সেনগাঁ গ্রামে দফায় দফায় প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়ে তিনজন গুরুতর আহত হয়েছে।
রক্তাক্ত জখম অবস্থায় নাসির তালুকদার(৫২),সুমন তালুকদার (৩৫), রুনা বেগম (৩০)কেস্থানীয়রা উদ্ধার করে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে এনে ভর্তি করায়।
সেনগাঁ গ্রামের বাবুল চৌধুরী,রবি চৌধুরী ও বাবুল চৌধুরীর ছেলে সোহাগ চৌধুরি সহ আরো অনেকে দলীয় ও পেশীশক্তির বলে নাসির তালুকদারের ভূমির উপর জোরপূর্বক দেয়াল নির্মাণ করেন। নাসির তালুকদার বাদী হয়ে ৩সেপ্টেম্বর চাঁদপুর বিজ্ঞ আদালতে উক্ত ভূমির উপর নিষেধাজ্ঞা মামলা দায়ের করেন। নিষেধাজ্ঞা মামলার নোটিশ ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকালে চাঁদপুর মডেল থানার এএসআই সাখাওয়াত হোসেন গিয়ে বাবুল চৌধুরীদের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়ে আসে।
নাসির তালুকদার ও তার ভাই সুমন তালুকদার মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ার পথে বাবুল চৌধুরী, রবি চৌধুরী, সোহাগ চৌধুরি, তাদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী তাপু রারী, বাবুল রারী, মোতালেব রারী,বাহার রারী সহ ২৫-৩০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।

এতে করে নাসির তালুকদার ও তার ভাই সুমন তালুকদার গুরুতর আহত হয়। তাদের ডাক চিৎকারে বাড়ি থেকে সুমন তালুকদারের স্ত্রী রুনা বেগম ছুটে আসলে সন্ত্রাসীদের এলোপাতাড়ি লাঠির আঘাতে রুনা বেগমের ডান হাত ভেঙ্গে যায়। হামলার ঘটনায় ৯৯৯ কল দিলে চাঁদপুর সদর মডেল থানার এএসআই সাখাওয়াত হোসেন আবারো ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই সময় হামলাকারীরা ঘটনাস্থল থেকে সরে যান। পুলিশ মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেন এবং আহত নাসির তালুকদার সুমন তালুকদার ও সুমন তালুকদারের স্ত্রী রুনা বেগম কে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠান। এদের মধ্যে সুমন তালুকদারের স্ত্রী রুনা বেগম এর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে চাঁদপুর সদর মডেল থানার পুলিশ জানায়, জায়গা দখল নিয়ে আদালতে মামলা হলে প্রতিপক্ষদের কাজ বন্ধ করে নোটিশ দেওয়ার পর তারা কিন্তু হয়ে হামলার ঘটনা ঘটেছে। ৯৯৯ ফোন করে হামলার ঘটনাটি জানানোর পর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।